শিরোনাম

হাসপাতাল ছাড়লেন এ্যানী

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৭:৫০:৫২ অপরাহ্ণ - ১০ এপ্রিল ২০১৮ | ২৮৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : নেপালে ইউএস-বাংলার প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনায় আহত আলীমুন নাহার এ্যানীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।
মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেওয়া হয়েছে এ্যানিকে। এ সময় এ্যানির মা-বাবা উপস্থিত ছিলেন। পরে হাসপাতাল থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।
ঢামেকের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন বলেন, এ্যানীকে আমরা ছাড়পত্র দিয়েছি। ও বাড়ি যাচ্ছে। ওকে বলে দিয়েছি কোনও অসুবিধা হলেই চলে আসবে।
তিনি আরও বলেন, এ্যানী এখন ভালো আছে। বাড়ি গেলে হয়তো ভালো লাগবে। তার শারীরিক অবস্থা ভালো। তার মানসিক অবস্থা খারাপ হতেই পারে। কারণ তার স্বামী-সন্তান মারা গেছে।
এদিকে এ্যানী গণমাধ্যমকে জানান, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে শ্বশুরবাড়ি ও বাবার বাড়ি দুই জায়গাতেই থাকবেন।
এ সময় এ্যানি মা-বাবা, মেয়ের জন্য দোয়া চান। বলেন, মেয়েটার কম বয়সেই বিয়ে দিয়েছিলাম। এখন এ্যানির বয়স ২২ বছর। গাজীপুরের একটি কলেজে সমাজবিজ্ঞানে অনার্স পড়ছেন এ্যানি। আমরা এ্যানির শ্বশুর বাড়ি গাজীপুরের শ্রীপুরে কিছুক্ষণ থেকে আমাদের বাড়ি ময়মনসিংহের ত্রিশাল চলে যাব।
উল্লেখ্য, ১২ই মার্চ ইউএস-বাংলার ফ্লাইটে নেপাল ভ্রমণে যাচ্ছিলেন এ্যানী ও তার স্বামী ফারুক আহমেদ প্রিয়ক ও সন্তান প্রিয়ন্ময়ী। দুর্ঘটনায় নিহত হন এ্যানীর স্বামী প্রিয়ক ও সন্তান প্রিয়ন্ময়ী। আহত অবস্থায় নেপাল থেকে ১৬ মার্চ এ্যানিকে দেশে এনে ভর্তি করা হয় ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে।
ইউএস-বাংলার এ ফ্লাইটটি বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় ২৬ জন বাংলাদেশি, ২২ জন নেপালি এবং একজন চীনা যাত্রী নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হন ১০ জন বাংলাদেশি, নয় জন নেপালি এবং মালদ্বীপের একজন নাগরিক। বিমানটিতে চার জন ক্রুসহ মোট যাত্রী ছিলেন ৭১ জন।

সর্বশেষ
%d bloggers like this: