শিরোনাম

হালুয়াঘাটে কংশের গ্রাসে শত শত একর জমির পাকা ধান

সর্বশেষ আপডেটঃ ০২:৩০:৪০ অপরাহ্ণ - ৩০ এপ্রিল ২০১৭ | ২৩২
হালুয়াঘাট উপজেলার বাহিরশিমুলের পাশ দিয়েই বয়ে যাওয়া কংশ নদী। নদীর দুইধারে বাহিরশিমুল ও চকেরকান্দা, বিষমপুর সহ বেশ কিছু গ্রাম। প্রতিবছর এই সময়ে নদীর বুক শুকিয়ে থাকতো চৌচির।
দুইপাড়ের কৃষকরা পানি সেচের ব্যাবস্থা করে ফলাতো বুরো ধান।  এইবারও তার ব্যাতিক্রম নয়। কিন্তু হঠাৎ টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে কংশের  পানি বেড়ে যাওয়ায় সেই কংশের গ্রাসে নিমজ্জিত হয়েছে বাহিরশিমুল,  চকেরকান্দা, বিষমপুর সহ আশে পাশের বেশ কিছু গ্রামের কৃষকের স্বপ্ন।
শত শত একর জমির পাকা ধান পানির নিচে তলিয়ে যাওয়াই কৃষক আজ দিশেহারা। শনিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়- কংশের পানি অল্প অল্প করে কমছে আর নিচ থেকে পাকা ধানের কুশি অল্প অল্প করে পানির উপরে ভাসতে শুরু করেছে।
এমন সময়ে কংশের বুক থেকে হাজার হাজার মন ধান সংগ্রহের মৌসুম থাকলেও এইবার নিস্তেজ হয়ে পড়েছে কংশের দুই তীরের মানুষ। ক্ষেতে যাবার সুযোগ নেই। কৃষকের মুখে  নেই হাসি। চাষীদের মাঝে দেখা দিয়েছে নিরব কান্না। স্থানীয় কৃষক আঃহামিদ(৬০), মকবুলহোসেন(৪০), আঃজলিল(৩৫), মোশারফ(৬০), আছিয়া(৪৫), নুরইসলাম(৫০), জসীম উদ্দিন(৬০)  জানান-কংশের গ্রাসে তারা প্রত্যেকেই ১ একর থেকে শুরু করে ৪ একর পর্যন্ত জমির পাকা ধান কংশের পানির নিচে নিমজ্জিত হয়েছে।  বিষমপুর গ্রামের কৃষক শরাফ উদ্দিন(৫৫), জয়নাল আবেদিন(৫০), মোস্তাক আহমেদ(৫৫), হাসমত আলী(৬০), আমীর হোসেন(৪৫), নাজিম উদ্দিন(৬০), আন্নাছ আলী সহ অনেক কৃষকের পাকা ধানের স্বপ্ন কংশের বুকে বিলীন হয়ে গেছে।
শুধু তাই নয়-কংশের পানি গড়িয়ে তার পাশেই অবস্থিত নাইচ্যা বিলের পানি বেড়ে সেখানেও হারিয়ে অনেক কৃষকের পাকা ধান। এখন শুধু কংশের তীরের মানুষেরা প্রকৃতির নির্মল বাতাসে নিঃশ্বাস নেওয়া ছাড়া আর কোন কাজ নেই তাদের।
সর্বশেষ