শিরোনাম

সুপ্রিম কোর্টও কব্জায় নিতে চায় সরকার: প্রধান বিচারপতি

সর্বশেষ আপডেটঃ ০২:৫২:১৬ অপরাহ্ণ - ২৩ মে ২০১৭ | ৩৭৯

নিম্ন আদালতের মতো সুপ্রিম কোর্টও সরকার কব্জায় নিতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

বিচারপতি অপসারণ সংক্রান্ত সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল শুনানিতে তিনি এই মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহার নেতৃত্বে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের সাত সদস্যের বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে এই আপিলের শুনানি হচ্ছে।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। অপরদিকে রিটকারীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

এর আগে সকাল সোয়া নয়টা থেকে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম তার যুক্তি খণ্ডন শুরু করেন। বেলা ১১টা পর্যন্ত শুনানি চলার পর আধা ঘণ্টার জন্য শুনানির বিরতি দেয়া হয়। পরে সাড়ে ১১টা থেকে আবার শুরু হয়।

শুনানির সময় আদালত বলেন, নিম্ন আদালতের ৮০ পার্সেন্ট সুপ্রিমকোর্টের নিয়ন্ত্রণে নেই। আপনি বলছেন, বিচার বিভাগ কার্যকর, এক জেলায় পাঁচ মাস ধরে জজ নেই। বিচার বিভাগ কার্যকর হলো কিভাবে?

সুপ্রিম কোর্টের কয়েকজন আইনজীবীর রিটের চূড়ান্ত শুনানি শেষে ২০১৬ সালের ৫ মে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির বেঞ্চ এই রায় ঘোষণা করেন। রায়ে দুই বিচারপতি ১৬তম সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করলেও এক বিচারপতি ওই সংশোধনী বহাল রেখে রিট আবেদন খারিজ করেন। কিন্তু নিয়মানুযায়ী সংখ্যাগরিষ্ঠ মতের ভিত্তিতে যে রায় দেয়া হয় সেটাই চূড়ান্ত রায়।

পরে এর বিরুদ্ধে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। চলতি বছর ৮ মে আপিলের প্রথম শুনানি হয়।

২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আনে জাতীয় সংসদ।

বিস্তারিত আসছে…

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 23 May 2017

 

সর্বশেষ
%d bloggers like this: