শিরোনাম

শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া দেশকে দাঁড় করাতে রাজপথে থাকবো: রকিব

সর্বশেষ আপডেটঃ ০১:১৬:৩৪ অপরাহ্ণ - ১৩ মে ২০১৮ | ৩৩০

বিশেষ প্রতিবেদন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া দেশের সবচেয়ে প্রাচীন সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। সংগঠনটির একমাত্র অভিভাবক হিসেবে বিবেচিত রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশে ২৯তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আজ। কারা হচ্ছেন ঐতিহ্যবাহী এই সংগঠনটির নতুন কান্ডারি তা নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সংগঠনের সাংগঠনিক নেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপে মেধাবীরাই আসছেন ছাত্রলীগের নেতৃত্বে। নতুন নেতৃত্বের ক্ষেত্রে গুরুত্ব পাচ্ছে পারিবারিক ঐতিহ্য, আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে বিশ্বাসী ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুসারী পরিবারের সন্তানরা।

এবারের সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তৃণমূল থেকে নেতৃত্ব তুলে আনার ঘোষণা দেন। এরই প্রেক্ষিতে মেধা ও মননে ছাত্রলীগের একজন পরীক্ষিত সৈনিক হিসেবে পরিচিত ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব জনপ্রিয়তার শীর্ষ পর্যায়ে রয়েছেন। তিনি আনন্দমোহন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি, ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমানে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন সফলভাবে।

সততা, নিষ্ঠা ও সাহসীকতার সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য ময়মনসিংহের গন্ডি পেরিয়ে গোটা বাংলাদেশের ছাত্র সমাজের মাঝে এখন তিনি একজন সফল নেতা। রকিব ছাত্রলীগের ২৯তম সম্মেলনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি পদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

আনন্দমোহন কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মাহমুদুল হাসান সবুজ বলেন, ‘রকিবুল ইসলাম রকিব ভাই আমাদের ময়মনসিংহ ছাত্রলীগের গর্ব। আমাদর দৃঢ় বিশ্বাস তৃণমূলের জরিপে কর্মীবান্ধব নেতা হিসাবে আমাদের ছাত্র সমাজের অহংকার রকিবুল ইসলাম রকিব ভাই জনপ্রিয় ও শক্তিশালী একজন প্রার্থী হিসাবে নিজেকে দাঁড় করাতে সক্ষম হয়েছেন।’

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রার্থীতা নিয়ে রকিবুল ইসলাম রকিব বলেন, ‘আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একজন গর্বিত কর্মী। আমার উপর অর্পিত দায়িত্বগুলো গুরুত্ব সহকারে পালন করার চেষ্টা করেছি নিরলসভাবে। এতিম ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক বাংলাদেশের সফল রাষ্ট্রনায়ক মমতাময়ী জননী স্নেহময়ী ভগিনী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে যদি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব প্রদান করেন তাহলে আমি সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করবো এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড হিসাবে কাজ করবো। আমার একমাত্র চিন্তা ছাত্রলীগকে বঙ্গবন্ধুর চেতনা ও আদর্শের ছাত্রলীগ হিসাবে গড়ে তুলা। যেকোন পরিস্থিতিতে আমার শরীরের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও জননেত্রীর ভ্যানগার্ড হিসাবে রাজপথে থাকবো। জাতির পিতার স্বপ্নের ছাত্রলীগ এবং ভিশন ২১-৪১ সফল করতে জীবন দিয়ে চেষ্টা করবো- ইনশাআল্লাহ।’

সর্বশেষ
%d bloggers like this: