শিরোনাম

ময়মনসিংহ রেঞ্জের চার জেলায় ট্রাফিক সপ্তাহে ৫ হাজার মামলা

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৩:৪৭:১৪ পূর্বাহ্ণ - ১৩ আগস্ট ২০১৮ | ১৭৬

ময়মনসিংহ রেঞ্জে চার জেলায় ট্রাফিক সপ্তাহে প্রায় ৫ হাজার মামলা, ৯ শত যানবাহন আটক, ১৭ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে ।

ময়মনসিংহ রেঞ্জের ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর নেত্রকোণায় চলমান ট্রাফিক সপ্তাহ উপলক্ষে ৭ দিনে বাস, ট্রাক, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, লড়ি, সিএনজি, পিকাপসহ বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে ট্রাফিক পুলিশসহ আইন শৃংখলা বাহিনী ৪ হাজার ৮৪১টি মামলা করেছে। এ সময়ে প্রায় ১৭ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

ঢাকার রাজপথে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই ছাত্রের মৃত্যুর পর সারাদেশে সড়ক নিরাপত্তার দাবীতে ছাত্র আন্দোলনের পর গত ৫ আগস্ট ট্রাফিক সপ্তাহ উদ্বোধন করা হয়।

৫ আগষ্ট থেকে গত ১১ আগষ্ট সাতদিনে ময়মনসিংহ রেঞ্জের ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর নেত্রকোণায় বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে উল্লে­খিত সংখ্যক মামলা ও জরিমানা আদায় করে।

ময়মনসিংহ রেঞ্জ পুলিশ অফিস সুত্রে জানা গেছে, গত ৫ আগষ্ট থেকে ট্রাফিক সপ্তাহ উপলক্ষে রেঞ্জে চার হাজার ৮৪১টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

এর মধ্যে ৫ আগষ্ট ৮৬৯টি, ৬ আগষ্ট ৭৭৯টি, ৭ আগষ্ট ৫১৮টি, ৮ আগষ্ট ৮১৮টি, ৯আগষ্ট ৭৫৮টি, ১০ আগষ্ট ৫৫২টি এবং ১১ আগষ্ট ৫৪৭টি বাস, ট্রাক, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, লড়ি, সিএনজি, পিকাপসহ বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

এ সময় বাস, ট্রাক, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, লড়ি, সিএনজি, পিকাপসহ বিভিন্ন ধরণের ৮৯১টি যানবাহন আটক করে। এছাড়াও ট্রাফিক ও আইন শৃংখলা বাহিনী মোটরসাইকেল চালকসহ বিভিন্ন ধরণের যানবাহনের ৬৬৩ জন চালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। উল্লে­খিত সময়ে ১৭ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা আদায় করা হয়

সড়কে নিরাপত্তা ও রাস্তায় চলাচলকারী যানবাহনের বৈধতা, চালকের লাইসেন্স, চলাচলকারী যানবাহনের ফিটনেস, রোড পারমিট, মোরসাইকেল চালকের হেলমেট, গাড়াীর ইন্সুরেন্সসহ রাস্তায় চলাচলের নিয়ম কানুন বহুল আকারে জানান দেওয়ার লক্ষে আইন শৃংখলা বাহিনী ও ট্রাফিক পুলিশের পাশে থেকে সহায়তা করে শিশু ও কচিকাচা রোভার ও স্কাউট সদস্যরা। ট্রাফিক সপ্তাহ তিনদিন বাগানোর কারণে আগামী ১৪ আগষ্ট পর্যন্ত ট্রাফিক সপ্তাহ চলবে।

ছাত্র আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী শিশু কিশোররা যেভাবে রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস, রোড পারমিট বিহীন, অবৈধ যানবাহন এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স বিহীন চালকদের বিরুদ্ধে আইন প্রয়োগ আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন পুলিশ কঠোর ভূমিকা পালন করছে। ট্রাফিক ও আইন শৃংখলা বাহিনীকে মোটর মালিক, শ্রমিক নেতৃবৃন্দ, রোভার ও স্কাউট সদস্য পাশে থেকে টানা কয়দিন ধরেই সহযোগীতা করে আসছেন।

অপরদিকে ময়মনসিংহ জেলা শহরসহ আশপাশ উপজেলায় চলতে থাকা হাজার হাজার সিএনজি দীর্ঘদিন ধরে কাগজপত্র না থাকলেও বিনা বাধায় বছরের পর বছর ধরে চলছে বলে বহু অভিযোগ। ট্রাফিক সপ্তাহে বিভিন্ন রোডে চলাচলকারী লক্কর ঝক্কর বাস ও অবৈধ রেজিষ্ট্রেশন বিহীন সিএনজি আটকের সংখ্যা তুলনামুলক কম হওয়া সম্পর্কে অতিরিক্ত রেঞ্জ ডিআইজি ডঃ আক্কাস উদ্দিন ভুইয়া বলেন, এ ব্যাপারে রেঞ্জ ডিআইজিসহ তিনি পুলিশ সুপারকে কোন ধরণের শৈথিল্য না দেখিয়ে কঠোর হওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন।

চলমান অভিযান আরো দু’তিন দিন রয়েছে। বাস ও সিএনজির বির“দ্ধে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা যথাযথ ব্যবস্থা নিবেন। ট্রাফিক বিভাগসহ আইন শৃংখলা বাহিনীকে সরকারের রাজস্ব আদায়ের লক্ষে আরো কঠোরতার সাথে দক্ষ ও দায়িত্বশীল হতে হবে। তাহলেই সড়ক নিরাপত্তা অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে।

সর্বশেষ
%d bloggers like this: