শিরোনাম

ময়মনসিংহ-জামালপুর স্টেশনের যাত্রীদের ট্রেনে ভ্রমণের দুর্ভোগ

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৪:৪৩:৪১ অপরাহ্ণ - ২৩ জুন ২০১৭ | ৩৬৮

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী, ময়মনসিংহ :
ঈদ উপলক্ষে নাড়ির টানে ঘরে ফিরতে শুরু করেছে ট্রেনের যাত্রীরা। যমুনা এক্স্রপ্রেস ট্রেন প্রতিদিনের মত বৃহস্পতিবার বিকেল ৪ টা ৪০ মিনিটে কমলাপুর থেকে ছেড়ে ময়মনসিংহ স্টেশনে আসে। দেখাযায়, যমুনা এক্স্রপ্রেস ট্রেনে উত্তরা, টঙ্গী, গাজীপুর, জয়দেবপুর অথবা বিমানবন্দর স্টেশনে যাতায়াতের ব্যবস্থা থাকলেও যাত্রীদের জন্য কোনো আসন বরাদ্দ নেই। এ কারণে ময়মনসিংহ-জামালপুর স্টেশনের যাত্রীদের ট্রেনে ভ্রমণের সময় দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

এই এক্স্রপ্রেস ট্রেনে দেখা যায়, টিকিট কিনে আসনে বসে অথবা আসনবিহীন টিকিট কিনে দাঁড়িয়ে যাওয়ার যাত্রী অন্য দিনের চেয়ে ঈদ উপলক্ষে একটু বেশি।

যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানাযায়, ঈদ উপলক্ষে বাসে সিট পাওয়া যায় না, যানজটে অতিষ্ঠ, ঝুলে যেতে হয়। তাছাড়া ট্রেনে ভাড়াও কম। এ অবস্থায় ট্রেনে ঘরে ফিরতে হচ্ছে। তার ওপর আবার গরম, যাত্রী বেশি থাকায় আসনবিহীন টিকিট কিনে দাঁড়িয়ে অথবা ঝুলে যাতায়াত করতে হচ্ছে। এতে জীবনের ঝুকিও বাড়ছে।

কয়েকজন রেল কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানাযায়, যারা অগ্রিম টিকেট নিয়ে স্টেশনে আসছেন, তাদের হাতে টিকিট দেখে ট্রেনে যাতায়াত করতে দেওয়া হচ্ছে। ট্রেনে যাত্রীদের চাপ কম। তবে দাঁড়িয়ে যাওয়ার যাত্রী অন্য দিনের চেয়ে একটু বেশি।

প্রসঙ্গত, সারা দেশের ট্রেনগুলো কমলাপুর থেকে স্টেশন দিয়েই যায়। এছাড়া ঢাকা (কমলাপুর স্টেশন) থেকে শুক্রবার ছাড়া প্রতিদিন দুটি ডেমু জয়দেবপুর (গাজীপুর) পর্যন্ত চলাচল করে। ডেমু ছাড়াও ঢাকা-গাজীপুর রুটে তুরাগ ট্রেনও প্রতিদিন চারবার আপ-ডাউন করে। গাজীপুর, টঙ্গী, আবদু্লাহপুর, উত্তরা স্টেশনগুলোতে গিয়ে ঢাকায় কম সময়ে কম ভাড়ায় যাতায়াত যায়।

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 23 June 2017

 

সর্বশেষ
%d bloggers like this: