শিরোনাম

ময়মনসিংহে পৌর কর্মকর্তা কর্মচারীদের কর্ম বিরতি ও অবস্থান কর্মসুচী

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৩:৫২:৫২ অপরাহ্ণ - ২৬ এপ্রিল ২০১৭ | ৩৮১

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি : বেতন-ভাতা ও পেনশন সরকারি কোষাগার থেকে আদায়ের লক্ষে বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে কর্মবিরতি পালন করেছে ভালুকা, ত্রিশাল ও গফরগাঁও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।
বুধবার বাংলাদেশ পৌর সভা কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের উদ্দ্যেগে সকাল ১১টা থেকে দুপুর বারটা পযর্ন্ত এ কর্ম বিরতি পালিত হয়।
পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী এসোসিয়েশন ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি বিল্লাল হোসেনের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, পৌরসভার সচিব আব্দুর রশিদ, সহকারী প্রকৌশলী মুন্নুর আহাম্মেদ, হিসাব রক্ষক আসাদুল হক প্রমুখ।
ত্রিশাল পৌরসভা কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের সভাপতি সুব্রত তরফদারের সভাপতিত্বে ও হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা  ত্রিশাল পৌর সভা কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের সাধারন সস্পাদক  কফিল উদ্দিনের পরিচালনায় পৌর সচিব নজরুল ইসলাম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান, প্রধান সহকারী ও ময়মনসিংহ বিভাগীয় পৌর কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের সাধারন সস্পাদক এছাহাক আলী, ত্রিশাল পৌর সভার  লাইসেন্স পরিদর্শক ও ময়মনসিংহ বিভাগীয় পৌর কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের কোষাদক্ষ আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।
গফরগাঁও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারী এসোসিয়েশনের সভাপতি হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে কমল বিরতিতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষক লীগের আহবায়ক আরিফুল ইসলাম ভূইয়া, গফরগাঁও সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি মাহতাব উদ্দিন সাদেক, পৌর সভার প্রধান সহকারি রফিকুল ইসলাম, ক্যাশিয়ার মোঃ আলামিন মিয়া, টিকাদানকারী সেলিম উদ্দিন প্রমুখ।
কর্মবিরতিতে তারা দাবী করে বলেন, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের অধীনে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, ওয়াসা, ইউনিয়ন পরিষদ কর্মচারী, সমবায় অধিদপ্তরসহ বহু প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পেয়ে থাকেন।
অথচ জনগণের চাকর হিসেবে মূল দায়িত্ব পালন করা সত্বেও পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও আনুতোষিক পৌরসভা থেকে প্রদান করা হয়ে থাকে। ফলে দেশের ৮০ ভাগ পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ও অন্যান্যে ভাতাদি যেমন, প্রভিডেন্ট, গ্যাচিহটি ও অন্যান্যে ফান্ড কর্মচারীদের ব্যক্তিগত খাতে জমা হওয়ার কথা তা অধিকাংশ পৌরসভায় ১ বছর ৫ বছর এমকি ১০ বছর পর্যন্ত জমা হয়নি।

সর্বশেষ