শিরোনাম

বিমানমন্ত্রীকে লিগ্যাল নোটিশ

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৭:৩৫:১৭ অপরাহ্ণ - ০৪ জুলাই ২০১৭ | ১৮৭

অবমাননাকর বক্তব্য প্রত্যাহার করে জাতির কাছে নি:শর্ত ক্ষমা চাইতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেননকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।নোটিশে আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি মন্ত্রী পরিষদ থেকে পদত্যাগের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এস.এম. জুলফিকার আলী জুনু এই লিগ্যাল নোটিশটি পাঠিয়েছেন।

যমুনা নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অ্যাডভোকেট এস.এম. জুলফিকার আলী জুনু নিজেই।

তিনি বলেন, রেজিষ্ট্রি ডাক এবং কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে লিগ্যাল নোটিশটি মন্ত্রী রাশেদ খান মেননের কাছে পাঠানো হয়েছে। লিগ্যাল নোটিশ প্রাপ্তির ৭২ ঘন্টার মধ্যে মন্ত্রী রাশেদ খান মেননকে আদালত অবমাননাকর বক্তব্য প্রত্যাহার এবং বিচার বিভাগের সম্মান প্রদর্শণ করে জাতির কাছে নি:শর্ত ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে তিনি মন্ত্রীর শপথটি ভঙ্গ করেছেন, যার ফলে তাকে মন্ত্রী পরিষদ থেকে পদত্যাগের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ৩ জুলাই সোমবার সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতিগণের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে দিয়ে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায় বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগ। আর সর্বোচ্চ আদালতের রায় নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেছেন রাশেদ খান মেনন। তিনি(মন্ত্রী) বলেছেন, ‘আদালত এরকম রায় দিতে পারে না’ তার এ বক্তব্য বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রচারিত হয়েছে। মন্ত্রীর এই বক্তব্য সরাসরি আদালত অবমাননার শামিল।

নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, গ্রণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৩৯ (১ )চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দান করা হলো। (২ ) রাষ্ট্রের নিরাপত্তা, বিদেশী রাষ্ট্রসমূহের সহিত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, জনশৃঙ্খলা, শালীনতা বা নৈতিকতার স্বার্থে কিংবা আদালত-অবমাননা, মানহানি বা অপরাধ-সংঘটনের প্ররোচনা সম্পর্কে আইনের দ্বারা আরোপিত যুক্তিসঙ্গত বিধি নিষেধ-সাপেক্ষ।

ক) প্রত্যেক নাগরিকের বাক ও ভাব প্রকাশের স্বাধীনতার অধিকার এবং খ) সংবাদপত্রের স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দান করা হইল।

নোটিশে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন আদালতের রায় নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করে গ্রণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৩৯ (২ ) লঙ্ঘন করেছেন। তিনি মন্ত্রী হিসাবে সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন। তিনি আদালত অবমানাকর মন্তব্য করে মন্ত্রীত্বের শপথ ভঙ্গ করেছেন।

ফলে এই লিগ্যাল নোটিশ প্রাপ্তির ৭২ ঘন্টার মধ্যে বক্তব্য প্রত্যাহার করে নি:শর্ত ক্ষমা এবং মন্ত্রী হিসাবে মন্ত্রিত্বের শপথ ভঙ্গ করায় মন্ত্রি পরিষদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে। অন্যথায় এই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে যথোপযুক্ত আইনী পদক্ষেপের নির্দেশনা চেয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 04 July 2017

 

সর্বশেষ
%d bloggers like this: