শিরোনাম

বারাক ওবামার অজানা প্রেমকাহিনী

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৩:৩৬:৫০ পূর্বাহ্ণ - ০৫ মে ২০১৭ | ২৮০

বারাক ওবামার বয়স যখন ২৫, যখন তিনি কেবলই একজন কলেজছাত্র, থাকেন ঝড়ো হাওয়ার শহর শিকাগোতে, তখন তিনি শেইলা জাগার নামে এক ছাত্রীকে দু’বার বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। ফলাফল কী হয়েছিল, তা তো বলাই বাহুল্য। তখন কে আর জানতো যে এই ছিপছিপে কৃষ্ণ যুবকটিই একদিন হবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৪তম প্রেসিডেন্ট!

 

সম্প্রতি প্রকাশিত ওবামার নতুন জীবনীগ্রন্থ রাইজিং স্টার-এ এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। বইটি লিখেছেন ডেভিড গ্যারো।

 

বইতে লেখা হয়েছে, ১৯৮০র দশকে তরুণ ওবামার সাথেই থাকতেন তরুণী শেইলা জাগার। বইতে শেইলার উদ্ধৃতি দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ”১৯৮৬ সালের শীতকালে ওবামাকে নিয়ে নিয়ে আমি আমার বাবা-মা’র সঙ্গে দেখা করি। এসময় সে আমার বাবা-মা’র কাছে আমাকে বিয়ের আগ্রহ প্রকাশ করে। কিন্তু আমার মা চিন্তা করেন, ২৩ বছর বয়সে বিয়ে! খুব তাড়াতাড়ি হয়ে যায়। তিনি রাজি হন না। আমরা ফিরে আসি এবং আগের মতোই একসঙ্গে বাস করতে থাকি।

 

১৯৮৮ সালে আবার একই প্রস্তাব দেন ওবামা। ওবামা তখন হার্ভার্ড ল স্কুলে পড়তে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এবার আর মা নন, শেইলা নিজেই প্রত্যাখ্যান করেন ওবামার প্রস্তাব।

 

বইটির লেখককে শেইলা বলেন, ” সে হঠাৎ খুব উচ্চাকাঙ্ক্ষী হয়ে যায়। আমার পরিষ্কার মনে আছে, ১৯৮৭ সালের দিকে, আমাদের সম্পর্কের বয়স তখন বছরখানেক, তখনই সে প্রেসিডেন্ট হওয়ার স্বপ্ন দেখতে শুরু করে দিয়েছে।”

 

এরপরই ওবামা চলে যান হার্ভার্ড ল স্কুলে। সেখানেই তাঁর সঙ্গে পরিচয়, প্রণয় ও পরিণয় মিশেল রবিনসনের (মিশেল ওবামা)। তার পরের ইতিহাস তো সবার জানাই। আর এদিকে ওহিও’র ওবেরলিন কলেজে ঈস্ট এশিয়ান স্টাডিজের প্রফেসর হিসেবে যোগ দেন শেইলা।

 

উল্লেখ্য, ড্রিমস ফ্রম মাই ফাদার নামে বারাক ওবামার একটি আত্মজীবনী আছে। বেস্ট সেলার এই বইতে নিজ কলেজজীবনের কথা থাকলেও শেইলার নামটি পর্যন্ত নেই। সূত্র : ইয়াহু

 

janatarpratidin.com /Md. Bappy /05 May 2017

এ বিভাগের জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর