শিরোনাম

বাবার মৃত্যুর বদলে ৫০ পাকিস্তানি সেনার মাথা চাই

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৫:২৯:৫৯ অপরাহ্ণ - ০২ মে ২০১৭ | ৩১৭

‘বাবার এই আত্মত্যাগ কখনোই ভোলা উচিত নয়, উনার প্রাণের মূল্যে অন্তত ৫০ জন পাকিস্তানি সেনার মাথা চাই।’ এই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্তি করেছেন ভারতের জম্মু ও কাশ্মিরের কৃষ্ণগতি নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর হামলায় নিহত সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্য প্রেম সাগরের মেয়ে সরোজের। মঙ্গলবার ওই জওয়ানের বাড়িতে মৃতদেহ পৌঁছলে কান্নায় ভেঙে পড়ে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ভারতের দাবি, সোমবার পাকিস্তানের বর্ডার অ্যাকশন টিম (বিএটি)-এর হামলায় নিহত হন বিএসএফ-এর ২০০ ব্যাটেলিয়নের হেড কনস্টেবল প্রেম সাগর ও সেনাবাহিনীর ২২ শিখ রেজিমেন্টের নায়েব সুবেদার পরমজিৎ সিংহ। পরে তাদের শিরচ্ছেদ করেন পাকিস্তানি সেনারা। এই হামলায় আহত হয়েছেন বিএসএফের কনস্টেবল রাজেন্দর সিং।

তবে পাকিস্তান এই ভারতের এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

এই ঘটনার পর শোকে ভেঙে পড়েছেন নিহতদের পরিবারের সদস্যেরা। পাক বাহিনীর এই বর্বরতার বদলে ৫০ জন পাকিস্তানি সেনার মাথা কেটে আনার দাবি জানিয়েছেন প্রেম সাগরের মেয়ে সরোজ। তিনি বলেন, ‘‘মাথার বদলে মাথা। আমার বাবার বলিদানের বদলে ৫০ জন পাক সেনার মাথা চাই।’’

৪৫ বছরের প্রেম সাগর উত্তরপ্রদেশের দেওরিয়া জেলার তাকেনপুরের বাসিন্দা। বাবার মৃত্যুর খবর এখনও তাকে জানায়নি প্রশাসন। সংবাদ মাধ্যমের কাছে এমনই অভিযোগ জানিয়েছেন প্রেম সাগরের কন্যা।

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী অরুণ জেটলি বলেছেন, ‘দেহগুলি ছিন্নিভিন্ন করেছে আমাদের প্রতিবেশী। এই ঘটনা অত্যন্ত নিন্দনীয়, বর্বরোচিত। এই ধরনের অমানবিক ঘটনা তো যুদ্ধের সময়ও ঘটে না। পাকিস্তানকে এর মূল্য চোকাতে হবে। ওই দুই শহিদের আত্মত্যাগ বিফলে যাবে না।’

২০১৩ সালে নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে ল্যান্স নায়েক হেমরাজের মাথা কেটে নিয়ে গিয়েছিল পাকিস্তান বর্ডার টিম। তার মা-ও গতকালকের পাক সেনার লজ্জাজনক আচরণে ক্রোধে ফুঁসছেন। তিনি দাবি করেছেন, ভারত এ বার গা ঝাড়া দিয়ে উঠে এ ধরনের হামলার পাল্টা উপযুক্ত জবাব দিক। ওরা আমার ছেলের ছিরচ্ছেদ করেছিল। এখন তো প্রতি দিনই এমন নানা ঘটনা ঘটতে দেখছি। সরকার কথা দিয়েছিল, ওরা আমাদের এক জনের মাথা কাটলে ওদের ১০টা মাথা কেটে আনবে, যদিও আজ পর্যন্ত কিছুই হল না।’

সূত্র: আনন্দবাজার ও টাইমস অব ইন্ডিয়া

janatarpratidin.com /Md. Bappy /02 May 2017

সর্বশেষ