শিরোনাম

বন্যায় পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব

সর্বশেষ আপডেটঃ ০২:৩১:৪০ পূর্বাহ্ণ - ০৬ জুলাই ২০১৭ | ১১২

ভারতের উজান থেকে ধেয়ে আসা পানির কারণে সিলেট ও মৌলভীবাজারে দেখা দিয়েছে বন্যা। জলাবদ্ধতার কারণে বন্যাকবলিত অঞ্চলের কিছু কিছু স্থানে নানা ধরনের পানিবাহিত রোগ দেখা দিয়েছে। বেশি আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা।

অন্যদিকে, সংকট রয়েছে বিশুদ্ধ পানির। বুধবার সিলেট আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, জেলায় আরও এক সপ্তাহ বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বরের কাটকাই গ্রামের শহীদুল ইসলাম স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, বন্যায় পানিবন্দি মানুষেরা বাধ্য হয়েই পানিতে চলাফেরা করছেন তাই নানা ধরনের চর্মরোগ দেখা দিয়েছে অনেকের, তবে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় তাদের পক্ষে সদর হাসপাতালে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

এছাড়াও জলাবদ্ধ হয়ে থাকা এলাকার শিশুরা নানা ধরনের রোগে ভুগছেন বলেও জানান তিনি।

ওসমানীনগর উপজেলার সাদীপুর ইউনিয়নের গজিয়া গ্রামের বাসিন্দা আলী হোসেন রানা বলেন, বন্যার কারণে বাড়ি-ঘর ও নলকূপ পানিতে ডুবে যাওয়ায় ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়ে গেছে। আমার ছেলেও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ছিল। তাকে দু’দিন হাসপাতালে রাখতে হয়েছে।

জলাবদ্ধ থাকায় ও স্যাঁতস্যাতে আবহাওয়ার কারণে শিশুরা শ্বাসকষ্ট ও নিউমোনিয়ার মতো কিছু রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন, তবে বিষয়টি এখনো মহামারীর পর্যায়ে যায়নি বলে জানান ফেঞ্চুগঞ্জের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, এছাড়াও বড়রা মূলত চর্মরোগে ভুগছেন, তবে তার সংখ্যাটাও কম।

সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. হিমাংশু লাল রায় জানান, বন্যা আক্রান্ত এলাকায় স্বাস্থ্য বিভাগ প্রতি মুহূর্তের খোঁজখবর রাখছে যাতে কোনো ধরনের রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে তা মোকাবেলা করা যায়। তবে আশঙ্কা রয়েছে যে কোনো সময় ডায়রিয়ার মতো নানা ধরনের রোগ মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 06 July 2017

 

সর্বশেষ
%d bloggers like this: