শিরোনাম

পাহাড়ে অশান্তির পেছনে বিএনপি-জামায়াতের হাত : ওবায়দুল কাদের

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৮:২৭:০৯ অপরাহ্ণ - ০৫ মে ২০১৮ | ২৮২

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাঙ্গামাটির নানিয়ারচর ইউপি চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা ও ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের পাঁচ নেতাকর্মী নিহতের মাধ্যমে পাহাড়কে অশান্তির যে চেষ্টা চলছে সেখানে বিএনপি-জামায়াতের হাত আছে বলে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘পাহাড়ে এই রক্তপাতের পেছনে বিএনপি-জামায়াত ঢুকে পড়ার ইঙ্গিত আমরা পেয়েছি। তারা কোটা সংস্কারে ঢুকেও ব্যর্থ হয়েছিল।’
শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের এস এস খালেদ সড়কের লেডিস ক্লাবে মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত ‘তৃণমূলের বর্ধিত সভায়’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন মন্তব্য করেন তিনি।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যখন এগিয়ে চলছে। সেখানে হঠাৎ করেই পাহাড়ে লাশের রাজনীতি শুরু হয়েছে। পাহাড়ে এই রক্তপাতের পেছনে বিএনপি-জামায়াত ঢুকে পড়ার ইঙ্গিত আমরা পেয়েছি। তারা কোটা সংস্কারে ঢুকেও ব্যর্থ হয়েছিল। সেজন্য আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’
ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশ গ্রহনে বিরত থাকলেও সংবিধানে কোন পরিবর্তন আসবে না।
তিনি বলেন, ‘বিএনপির আগামী নির্বাচনে অংশ নেয়া বা না নেয়ার স্বাধীনতা রয়েছে। তবে সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়েই আগামী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সংবিধান এবং নির্বাচন কারো জন্যই অপেক্ষা করবে না। গত জাতীয় নির্বাচন যেমন কারো জন্য অপেক্ষা করে নি, আগামী জাতীয় নির্বাচনও কারো জন্য অপেক্ষা করবে না।’
ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিকে নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কোন কারণ নেই। কারণ তারা গত নয় বছরের নয় মিনিটও রাজপথে আন্দোলন করতে পারে নাই। আগামী নয় মাসেও কিছু করতে পারবে না। তারা (বিএনপি) সরকার বিরোধী আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এখন নতুন ইস্যু তৈরি করার ষড়যন্ত্র করছে। তারা পার্বত্য চট্টগ্রামের শান্তিপূর্ণ পরিবেশকে অশান্ত করার ষড়যন্ত্র করছে। তাদের এ ধরনের হীন ষড়যন্ত্র কখনো সফল হবে না।
আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয়কে সুনিশ্চিত করার জন্য অভ্যন্তরীণ বিরোধ ও ভূলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য নেতা-কর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, ‘ আমরা ঐক্যবদ্ধ না হলে দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখা সম্ভব হবে না।’
দেশের মানুষকে খুশি করাই আওয়ামী লীগের মূল এজন্ডা হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, কতিপয় দলীয় নেতা-কর্মীর দুর্ব্যবহারের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অর্জনকে ম্লান এবং দেশের উন্নয়নকে ব্যাহত করতে দেওয়া হবে না।
শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি রুখতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিতকরণ, সংগঠনকে তৃণমূল পর্যায়ে শক্তিশালী ও গতিশীল করার লক্ষ্যে এ সভার আয়োজন করা হয়।
সভায় সাবেক মন্ত্রী ড. আফসারুল আমিন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যরিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাসির উদ্দিন এবং নগর আওয়ামী লীগের অধীন বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।

সর্বশেষ
%d bloggers like this: