শিরোনাম

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের- জাতীয় বেঈমানের তকমা লাগানো হোক।

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৪:২৬:৫১ পূর্বাহ্ণ - ২২ নভেম্বর ২০১৮ | ৩৯০

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনে অংশ নেয়ার অনুঘটক ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নামে যে ফ্রন্ট গঠিত হয়েছে, এখানে বিএনপির মত একটি অভিজ্ঞ দল ড. কামালের সঙ্গে আঁতাত করে কথিত জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট গঠনের মাধ্যমে নিজেদের দেওলিয়াপনা জাহির করেছে। অন্যদিকে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের বেশীর ভাগ নেতাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আওয়ামীলীগের সাবেক বড় বড় নেতা, মূলত তাদের জন্মই হয়েছে আওয়ামীলীগের মাধ্যমে।

আওয়ামী লীগের সৃষ্টি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে এগুচ্ছে আওয়ামীলীগ বিরোধী জোট,জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। আর বিএনপির মাধ্যমে রাজনীতিতে বেড়ে ওঠা প্রবীণ নেতা অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী রয়েছেন বিএনপির প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের সঙ্গে। সত্যের পথে ফিরে আসার উদাহরণ এটি. জোট-অ্যালায়েন্স, ফ্রন্ট, লিয়াজোঁ কমিটি ইত্যাদি মিতালিতে যুগে যুগে এমনটিই হয়েছে।এসবের পেছনে কোনোকালেই রাজনৈতিক বা নৈতিক আদর্শের বিষয়-আসয়ের প্রমাণ মেলে না ইতিহাসে। বিগত কয়েকটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জামায়াতের বাইরে হাতে গোনা কয়েকটি দল থাকলেও এবারের চিত্র ভিন্ন।

ঐক্যফ্রন্ট,ঐক্যজোটে ভাঙা-গড়ার খেলাও জমেছে বেশ। আদর্শের কিছু নেই এইসব ফ্রন্টদের. দেশে চলমান রাজনৈতীক এমন পরিস্তিতিতে আওয়ামী লীগ থেকে বেরিয়ে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট তথা বিএনপিতে/ ধানের শীষের বিশ্বাসী হয়েছেন তাদের কে ‘জাতীয় বেঈমান’ আখ্যা দিয়ে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ সদর-৪ থেকে নৌকা প্রতিকে মননয়ন প্রত্যাশী মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব তার ফেসবুক স্টেটাসে যা লিখেছেন তা হুবহু তুলে ধরা হলঃ

যারা মুজিব কোট পরিধান করে নৌকা থেকে নেমে, চিটা_ধানের বোঝা মাথায় নিয়েছে;

স্বাধীনতা বিরোধীদের দল ,, ধানের_শীষে যোগ দিয়েছে! এরা শুধু নৌকা’র সাথেই নয়! বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ, সকল শহীদ তথা বাংলাদেশের সাথে বেঈমানী করছেন।

যারা আওয়ামীলীগ থেকে বের হয়ে বিএনপি তে যোগ দিতে পারে তারা সব করতে পারে –

• এমনকি শরীরের রক্ত পরিবর্তন করতে পারে!

• এরা নিজ ধর্মও পরিবর্তন করতে পারে! প্রজন্মের প্রতি অনুরোধ রইলো- • এইসব জাতীয় বেইমানদের শরীর থেকে মুজিব কোট খুলে দেওয়া হোক!

• যারা জাতীয় খেতাব প্রাপ্ত হয়ে নিজেদের মানব থেকে মহামানব ভাবছেন; তাদের গাত্র থেকে জাতীয় খেতাবের পরিবর্তে, জাতীয় বেঈমানের তকমা লাগানো হোক।

• স্বাধীন বাংলাদেশ থেকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করা হোক।

সর্বশেষ
%d bloggers like this: