শিরোনাম

জঙ্গি দমনে কিছু দলের বক্তব্য রহস্যজনক: আইজিপি

সর্বশেষ আপডেটঃ ০১:২৩:৪০ পূর্বাহ্ণ - ০১ মে ২০১৭ | ৩৭৮

পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক বলেছেন, ‘জঙ্গিদের ব্যাপারে কোনো কোনো রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের ‘রির্জাভেশন’ আছে’। তারা আমাদের (পুলিশ) কর্মকাণ্ড পছন্দ করেন না। তারা যা কিছু বক্তব্য-বিবৃতি দেন, যেটা জঙ্গিদের পক্ষে দেন।

রোববার পুলিশ সদরদপ্তরে এক অনুষ্ঠানে শহীদুল হক এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আবার জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে কোনো পুলিশ সদস্য মারা গেলে তারা একটা নিন্দাও জানান না, বা দুঃখও প্রকাশ করেন না’।

আওয়ামী লীগ সরকার যেভাবে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়ছে, তা নিয়ে আপত্তি আছে বিএনপির।

দলটির নেতারা জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে ‘সবাইকে নিয়ে’ জাতীয় ঐক্য গড়ার কথা বলছেন। পাশাপাশি বিভিন্ন আস্তানায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে জঙ্গিদের জীবিত গ্রেপ্তার করতে না পারা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন তারা।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গত ২৮ মার্চ এক বিবৃতিতে বলেন, ‘বর্তমান স্পর্শকাতর একটি সময়ে জঙ্গিবাদের আকস্মিক বিস্তার ও দমন অভিযানে স্বচ্ছতার অভাবে জনমনে নানা প্রশ্ন ও সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে’। এই সব সন্দেহ দূর করতে হবে। আমি এই বিষয়গুলো অবিলম্বে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে শহীদুল হক বলেন, জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের জন্য সময় দেওয়া হয়। কিন্তু তারা আত্মঘাতী। পুলিশের আহ্বানে সাড়া না দিয়ে আত্মাহুতির পথ বেছে নেয়।

‘একজন জঙ্গি মারা গেছে, তারা (রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ) বলেন- কেন মারল’? গ্রেপ্তার করল না কেন? জীবিত গ্রেপ্তার করলে তথ্য পাওয়া যেত… হেন-তেন বলেন।

বিশ্বচিত্রের দিকে তাকালে দেখা যায়, কেউ জঙ্গি গ্রেপ্তার করতে পারে না। গ্রেপ্তার করার কোনো সুযোগই নাই। ওর (জঙ্গি) কাছে অস্ত্র থাকে, বোমা থাকে। ও সুইসাইডাল, ও পণ করেছে ও মরবে, মরে বেহেশতে যাবে।

দেশে বিভিন্ন অভিযানে জঙ্গিদের জীবিত গ্রেপ্তারে ‘অনেক চেষ্টা’ হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আত্মসমর্পণের জন্য সময় দেওয়া হয়েছে, আত্মীয়-স্বজনদের মাধ্যমে চেষ্টা করা হয়েছে, কিন্তু জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করতে চায়নি।

তবে জঙ্গিদমনে গণমাধ্যমকে সবসময় পুলিশ পাশে পেয়েছে বলে মন্তব্য করেন আইজিপি।

 

janatarpratidin.com /Md. Bappy /01 May 2017

সর্বশেষ