শিরোনাম

চার জেলায় বজ্রাঘাতে নিহত ১০

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৭:৫৯:২১ অপরাহ্ণ - ০৭ মে ২০১৮ | ২৪৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের চার জেলায় বজ্রাঘাতে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে শেরপুরে স্কুলছাত্রীসহ ৪ জন, ময়মনসিংহ গৌরীপুরের ০১, হবিগঞ্জে ২, মৌলভীবাজারে ২ ও সুনামগঞ্জে ১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ২ জন।
প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর ঃ শেরপুর: জেলার চার উপজেলায় স্কুলছাত্রীসহ বজ্রাঘাতে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল ১০টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন শেরপুর সদর উপজেলার হালগড়া গ্রামের আব্দুর রহিম, নালিতাবাড়ি উপজেলার ১০ শ্রেণির ছাত্রী শারমিন, নকলা উপজেলার মোজারচর গ্রামের শহিদুল ইসলাম ও শ্রীবর্দী উপজেলার বকচর গ্রামের কুব্বাদ আলী। শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
গৌরীপুর : ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ক্ষেতে ধান কাটা অবস্থায় বজ্রপাতে রুস্তম আলী (৭০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (৭ মে) বেলা ১১ টার দিকে এ উপজেলার পূর্ব শালিহর গ্রামে এ বজ্রপাতের ঘটনাটি ঘটে। নিহত কৃষক ওই গ্রামের গ্রামের মৃত কছিম উদ্দিনের পুত্র। নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে ঘটনার দিন রুস্তম আলী ঝড়ো বৃষ্টির সময় নিজ ধান ক্ষেতে ধান কাটতে ছিলেন। এসময় বজ্রপাতে সে গুরুতর আহত হন। পরে দুপুর ১ টায় গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার ডাঃ সৈয়দা মাসরুরা তানিজম এ বিষয়ে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন।
হবিগঞ্জ: জেলার বানিয়াচং উপজেলায় হাওরে ব্রজাঘাতে দুই কৃষক নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় আরও দুইজনকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে বানিয়াচংয়ের দৌলতপুর হাওরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন বানিয়াচং উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের তেলঘরিয়া গ্রামের নাদু বৈষ্ণবের ছেলে অধীর বৈষ্ণব (২৭) ও একই গ্রামের বিরেশ্বর বৈষ্ণবের ছেলে বসু বৈষ্ণব (৩২)।
বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
মৌলভীবাজার: জেলায় পৃথক স্থানে বজ্রাঘাতে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে ঝড়-বৃষ্টির মধ্যে এই দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন সদর উপজেলার খলিলপুরের আবু সামাদ ও শ্রীমঙ্গল উপজেলার মৎস্যজীবী মফিজ মিঞা (১৫)।
হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: অশোক বোস আরটিভি অনলাইনকে জানান, নিহত দুইজনের মরদেহ তার পরিবারের লোকজন নিয়ে গেছেন।
সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার ছায়ার হাওরে ধান মাড়াই করার সময় বজ্রাঘাতে নবকুমার দাস (৬৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। নবকুমারের বাড়ি উপজেলার নিয়ামতপুর গ্রামে।
নবকুমারের স্বজনরা বলেন, ছায়ার হাওরে বোরো ধান মাড়াই করার সময় বজ্রাঘাতে আহত হন নবকুমার। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পাশের দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
শাল্লা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলাম বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

সর্বশেষ
%d bloggers like this: