শিরোনাম

ঈদযাত্রায় পাঁচ জেলার সড়কে প্রাণ গেল ২৭ জনের

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৮:৩৮:৪১ পূর্বাহ্ণ - ২৫ জুন ২০১৭ | ১৫৪

স্বজনদের সঙ্গে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে বাড়ি ফেরার পথে পাঁচ জেলায় সড়কে প্রাণ গেছে ২৭ জনের। এদের মধ্যে রংপুরের পীরগঞ্জেই ট্রাক উল্টে নিহত হয়েছেন ১৭ জন। এছাড়া গাজীপুরে ট্রাক-লেগুনা সংঘর্ষে চারজন, কুমিল্লার লাকসামে তিনজন, মাগুরায় দুইজন এবং চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে একজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

প্রতি বছর ঈদের সময় মানুষ গ্রামমুখী হওয়ায় মহাসড়কে গাড়ির চাপ বেড়ে যায়। টিকিট না পেয়ে অনেকে অল্প টাকায় গাড়ির ছাদে চেপে বাড়ির পথে রওনা হন। এছাড়া নির্ধারিত ট্রিপের চেয়ে অতিরিক্ত ট্রিপ দেয়ায় অনেক গাড়ির চালক ক্লান্ত হয়ে পড়েন। টাকা বাঁচানোর জন্য গাড়ির ছাড়ে না উঠতে সরকার ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে জনসাধারণকে বারবার অনুরোধ করা হলেও অনেকে এসব নির্দেশকে তোয়াক্কা না করে গাড়ির ছাড়ে করে রওনা হন বাড়ির পথে। এর ফলে গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়লে মৃত্যুর মিছিলে বাড়তে থাকে লাশের সংখ্যা। তেমনি আজও  সড়কে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে প্রাণ হারাতে হয় ২৭ জনকে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।

রংপুরে ট্রাক উল্টে নিহত ১৬

জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার কলাবাগান এলাকায় ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে সিমেন্টবাহী একটি ট্রাক উল্টে ১৭ পোশাক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত আটজন। হতাহতরা সবাই ঈদ করতে ট্রাকযোগে গাজীপুর থেকে বাড়ি ফিরছিলেন।

দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে পাঁচজনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন আলমগীর (২৭), দেলোয়ার (৩০), সাদ্দাম (২৫), মনির (২৮) ও জসীম (২৬)। তাদের মধ্যে আলমগীর গাজীপুরে অটোরিকশা চালাতেন। জসীম ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের কর্মচারী ছিলেন। বাকি তিনজন পোশাকশ্রমিক।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন খাদিজা, আফরোজা, রহিমা, জামিলা, ময়না, মমিনুল, খলিল ও দুলাল। তাঁদের সবার বয়স ২২ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে। তাঁদের মধ্যে খাদিজা আলমগীরের স্ত্রী। হতাহত সবার বাড়ি লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে।

পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল করীম জানান, সিমেন্টবাহী ট্রাকটিতে ২৮ থেকে ৩০ জন শ্রমিক গাজীপুর থেকে রংপুরে যাচ্ছিল। পথে কলাবাগান এলাকায় ট্রাকটি উল্টে গেলে ঘটনাস্থলেই ১১জন নিহত হন। আহত হন ১৩ জন। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানে ছয়জনের মৃত্যু হয়। অন্য আহতদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তাদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে ওসি জানিয়েছেন।

গাজীপুরে ট্রাক-লেগুনা সংঘর্ষে নিহত ৪

আমাদের গাজীপুর প্রতিনিধি জানান, দুপুর একটার দিকে কালিয়াকৈর উপজেলার মৌচাক এলাকায় ট্রাকের সঙ্গে লেগুনার সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত আটজন। তাদের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, দুপুরে মৌচাক এলাকায় চন্দ্রাগামী একটি লেগুনার সঙ্গে গাজীপুরগামী গরুবোঝাই একটি ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে লেগুনায় থাকা ১২ যাত্রী আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক চারজনকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতদের মধ্যে একজন নারীও রয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নামপরিচয় জানা যায়নি।

শহীদ তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজের আবাসিক চিকিৎসক ডা. প্রণয় কুমার দাস জানান,আহতদের মধ্যে দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

কুমিল্লাতেও সড়কে ঝরেছে তিন প্রাণ

কুমিল্লা-চাঁদপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের লাকসামে কাভার্ড ভ্যান ও সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে পরিবহন দুটির চালকসহ তিনজন নিহত এবং দুইজন আহত হয়েছেন। বিকালে লাকসামের ফুলুয়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। আহত দুইজন অটোরিকশার যাত্রী। হতাহতদের নামপরিচয় পাওয়া যায়নি।

হাইওয়ে পুলিশ লালমাই ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক ইব্রাহীম খলিল জানান, কুমিল্লা থেকে চাঁদপুরগামী এসএ পরিবহনের একটি কাভার্ড ভ্যানের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই যান দুটির চালকসহ তিনজন নিহত হন। আহত হয়অপর দুই যাত্রী। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে এবং আহতদের কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়।

মাগুরায় পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ২

জেলার মাগুরা-ঝিনাইদহ ও মাগুরা শীপুর সড়কে আলাদা সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হয়েছেন।

নিহতরা হলেন- সদরের পাকানচনপুর গ্রামের গফুর মুন্সীর ছেলে শহীদ মুন্সী ও আঠারখাদা গ্রামের জমির শেখের মেয়ে মোহনা।

রাজধানীতে প্রাণ গেছে একজনের

রাজধানীর খিলক্ষেতের কুড়িল বিশ্বরোডে বিকালে বাসের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে মো. সোহেল নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন মো. স্বপন নামে আরও এক যুবক। দুইজনই মোটরসাইকেলের আরোহী ছিলেন।

নিহত সোহেল তার পরিবারের সঙ্গে রাজধানীর শাহজাহানপুরের ৫১৬ নম্বর বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। তিনি কুমিল্লা জেলার তিতাশ থানার হাবিবুর রহমানের ছেলে।

সীতাকুন্ডে দুই ট্রাকের সংঘর্ষে সহকারী নিহত

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড উপজেলার পৌর সদরের বারৈয়ারহাট এলাকায় দুই ট্রাকের সংঘর্ষে আলাউদ্দিন নামে একজন নিহত হয়েছেন। তার বাড়ি নোয়াখালী। তিনি একটি ট্রাক চালকের সহকারী ছিলেন। সুত্র :- ঢাকাটাইমস

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 25 June 2017

 

সর্বশেষ
%d bloggers like this: