শিরোনাম

ইস ….

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৫:৪০:৩৭ পূর্বাহ্ণ - ১৯ আগস্ট ২০১৮ | ২৪৯

খাবার চেয়ে না পাওয়ায় দোকান থেকে শুধুমাত্র একটি পলিথিন ব্যাগ তুলে নেয়ার কারণে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মানসিক প্রতিবন্ধী (পাগলী) এক নারীকে রক্তাক্ত জখম করেছে এক নিষ্ঠুর মিষ্টি ব্যবসায়ী।

পাবনার চাটমোহর রেলষ্টেশন এলাকায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত মিষ্টি দোকানী জামরুল ইসলাম মূলগ্রাম ইউনিয়নের মাঝগ্রাম এলাকার খইমুদ্দিনের ছেলে। পরে স্থানীয়রা এর প্রতিবাদ করলেও তাদেরকে গালিগালাজ করে জামরুল। এ সময় আহত ওই মানসিক প্রতিবন্ধী নারীর আহাজারিতে পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে।

ঘটনাটি নিয়ে শনিবার সকালে চাটমোহর প্রেসক্লাবের সভাপতি রকিবুর রহমান টুকুন চাটমোহর থানার ওসি মো. বোদরুদ্দোজাকে মানবিক দিক বিবেচনা করে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানালে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে পালিয়ে যায় মিষ্টি ব্যবসায়ী জামরুল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেশ কয়েকদিন ধরে নাম না জানা মানসিক প্রতিবন্ধী ওই নারী রেলষ্টেশন এলাকায় অবস্থান করছেন। ট্রেনের যাত্রী থেকে শুরু করে স্থানীয় দোকানদারদের কাছ থেকে খাবার চেয়ে কোন মতে ক্ষুধা নিবারণ করেন তিনি। শুক্রবার বিকেলে জামরুলের মিষ্টির দোকানে গিয়ে খাবার চাইলে তাকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। পরে দোকানের টেবিলের ওপর থেকে একটি পলিথিন ব্যাগ নিয়ে যাওয়ার সময় মানসিক প্রতিবন্ধী ওই নারীকে বকাঝকা করেন জামরুল। এ সময় ওই নারীও বকাঝকা শুরু করলে তাকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে জামরুল।

স্থানীয়রা এর প্রতিবাদ করতে গেলে তাদেরকেও গালিগালাজ করা হয় বলে অভিযোগ। এ সময় ষ্টেশনের ওপর শুয়ে যন্ত্রণায় কাতর মানসিক প্রতিবন্ধী ওই নারীর দু’চোখ বেয়ে গড়িয়ে পড়ছিল অশ্রু। তার আহাজারিতে এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে।

এ ব্যাপারে চাটমোহর প্রেসক্লাবের সভাপতি রকিবুর রহমান টুকন বলেন, একজন মানসিক প্রতিবন্ধীকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করা কোন মতেই সমর্থন যোগ্য নয়। এটি একটি অমানবিক কাজ। এলাকাবাসীর প্রতিবাদ করা উচিত ছিল। বিষয়টি থানার ওসিকে জানিয়েছি। অভিযুক্ত জামরুলের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বোদরুদ্দোজা বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। একজন মানসিক প্রতিবন্ধীকে (পাগলী) মারধর করা জঘন্য অপরাধ। জামরুলকে ধরতে পুলিশ পাঠানো হলে সে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

সমাজে বসবাসকারী আর দশজন স্বাভাবিক মানুষের মত দেখতে এমন নিষ্ঠুর মানুষ, যে একজন পাগলীর সাথেও এমন নিষ্ঠুরতা করতে পারে! তার জন্য মানবতা কি বলতে পারে? ইস! কি বর্বরতা?

সর্বশেষ
%d bloggers like this: