শিরোনাম

আ.লীগ নেতা হত্যা মামলায় ৬ জনের ফাঁসি

সর্বশেষ আপডেটঃ ০২:০৮:৪৫ পূর্বাহ্ণ - ১৭ মে ২০১৭ | ৩৬৯

রাজধানীর শ্যামপুর থানা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সহ-সভাপতি মোহাম্মাদ উল্লাহ হত্যা মামলায় ৬ জনের ফাঁসি এবং ২ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা জেলা ও মহানগর দায়রা জজ আদালত এই রায় দেন।

মোহাম্মাদ উল্লাহ ছিলেন একজন মুক্তিযোদ্ধা। ২০১১ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি দুপুরে পুরান ঢাকার জুরাইনের কমিশনার রোডে সন্ত্রাসীদের গুলিতে তিনি নিহত হন। তার সঙ্গে তার গাড়ি চালক হারুনুর রশিদও নিহত হন।

সেদিনই মোহাম্মদ উল্লাহ’র স্ত্রী বাদী হয়ে শ্যামপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। হত্যাকাণ্ডের দিন হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জাভেদ ও আরিফ নামে দুইজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরদিন বুধবার গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) হাতে শাহ আলম হাওলাদার, জুম্মন, জাকির হোসেন ও শরিফুল ইসলাম শরিফ নামে আরও চারজন গ্রেফতার হন।

ওই দিন মিন্টু রোডের ডিবি কার্যালয়ে ডিবির (দক্ষিণ) উপ-কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী সন্ত্রাসী ইমনের নির্দেশে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে।

তিনি আরো জানান, শ্যামপুর এলাকায় এমএলএম ব্যবসা, মাদক, জুয়াসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজে বাধা দেওয়ায় মোহাম্মদ উল্লাহ খুন হন। সেদিন তিনি মূল পরিকল্পনাকারীর নাম জানাননি।

এ মামলায় ২০১১ সালের ৩১ অক্টোবর রায়হান খোকন নামে একজনকে মূল পরিকল্পনাকারী ও নির্দেশদাতা চিহ্নিত করে তাকেসহ মোট ১২ জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয় পুলিশ। দীর্ঘ সাড়ে ৫ বছর সাক্ষ্যগ্রহণ ও উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে আজ এই মামলার রায় হলো।

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 17 May 2017

 

সর্বশেষ
%d bloggers like this: