শিরোনাম

অবশেষে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট কার্যালয় সিলগালা

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:০২:৪০ পূর্বাহ্ণ - ২৯ এপ্রিল ২০১৭ | ৩৮৮

দলীয় কার্যালয় দখলের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রফ্রন্টের দুই দলের মধ্যে শুক্রবার সকাল থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ চলতে থাকে। বিকেল ৫টার দিকে লাঠিসোঠা নিয়ে দুই দল মুখোমুখি সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

পুলিশের উপস্থিতিতেই মাঝে মাঝেই দুইদল বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পরে। এক পর্যায়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে পুলিশের সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পরে কার্যালয় সিলগালা করে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এসময় দুইদলের সংঘর্ষে প্রায় ১০ জন আহত হয়। গুরুতর আহতদের ময়মনসিংহ মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রক্টর এ কে এম জাকির হোসেন বলেন, প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের কাছে এ ধরনের ঘটনা কখনই কাম্য নয়। সমঝোতার চেষ্টা করেছি ব্যর্থ হয়ে কার্যালয় সিলগালা করা হয়েছে। পরবর্তীতে প্রশাসন ও তাদের সঙ্গে কথা বলে কার্যালয় খুলে দিয়ে ছাত্র-রাজনীতির সুযোগ করে দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, ছাত্রফ্রন্টের দুই দলই একই নাম ব্যবহার করেন। তবে চার বছর আগে বিভাজনের সময় একটি পক্ষ বাসদ মার্ক্সবাদী এবং অপরটি বাসদ। ২০১৩ সালে বিভক্তির পর থেকে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রফ্রন্টের কার্যালয় থেকে বাসদের নেতাকর্মীদের বের করে দেন বাসদ মার্ক্সবাদীরা। গত চার বছর ধরে মার্ক্সবাদীরাই কার্যালয়টি ব্যবহার করে আসছেন।

গত বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কার্যালয় দখল নিয়ে বাকৃবি ছাত্রফ্রন্টের দুই দলের মধ্যে দফায় দফায় হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। আজ আবার শুক্রবার সকাল থেকে পুনরায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে দুই দল।

janatarpratidin.com /Bappy /29 April 2017

সর্বশেষ