শিরোনাম

৪ মাসে ধর্ষিত ১৭৭ নারী-শিশু

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৫:২২:৩৮ অপরাহ্ণ - ১৮ মে ২০১৭ | ১৪৩

দেশে ক্রমেই বাড়ছে ধর্ষণের ঘটনা। এতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা (বিএমবিএস)।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটি জানায়, সম্প্রতি লাগামহীনভাবে বেড়েছে ধর্ষণের ঘটনা। গাজীপুরে শিশু কন্যা সন্তানের ধর্ষণের বিচার না পেয়ে অভিমান ও লজ্জায় মেয়েকে নিয়ে ট্রেনের নিচে পড়ে আত্মহত্যা করেন বাবা। বনানীর দুই তরুণীর ধর্ষণ ঘটনা নিয়ে দেশব্যাপী চলছে আলোচনার ঝড়। এর মধ্যে গতকাল বুধবার সাভারের এক গার্মেন্টস শ্রমিক নির্মম গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এর আগের দিনেও গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক শিশু।

বিএমবিএস তথ্য মতে, গত চার মাসে ১৭৭ জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ৭৬ নারী ও ৭৭ জন শিশু ধর্ষিত হয়। গণধর্ষণের শিকার হয় ২৪ জন, ধর্ষণের পর হত্যার শিকার হয় পাঁচজন। ধর্ষণের ঘটনা বেশি ঘটে ঢাকা বিভাগে। এর পর চট্টগ্রাম ও রাজশাহীর অবস্থান।

এ বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সংস্থার চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সিগমা হুদা । তিনি বলেন, ধর্ষণের বিচারকাজে আমাদের দেশে প্রচুর সময় নেয়া হয়। এর মধ্যে ভিকটিমকে নানা হয়রানির শিকার হতে হয় । তাই অনেক ভিকটিম মামলা করতে চান না। তিনি বলেন, ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান নিশ্চিত করা গেলে আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে আমি মনে করি।

সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোস্তফা সোহেল বলেন, দ্রুত ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলেছে। রেহাই পাচ্ছে না শিশুরাও। এর প্রধান কারণ অপরাধীদের বিচার না হওয়া। অপরাধীদের দ্রুত শাস্তির বিধান নিশ্চিত না করলে এ অবস্থা থেকে বের হতে পারবো না আমরা।

তিনি আরো বলেন, নারীর প্রতি সহিংসতা রোধ করতে শুধু সরকার নয়; সব সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলোকেও এক হয়ে কাজ করতে হবে

 

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 18 May 2017

 

সর্বশেষ