শিরোনাম

স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর মন্ত্রী শূন্য হলো কিশোরগঞ্জ

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৯:৫৭:১৯ অপরাহ্ণ - ০৬ জানুয়ারি ২০১৯ | ৭৯

স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর মন্ত্রী শূন্য হলো কিশোরগঞ্জ। মন্ত্রী সভার নাম প্রকাশ হওয়ার পর পরই কিশোরগঞ্জে নানা গুঞ্জন শুনা গেছে। বিশিষ্টজনের প্রতিক্রিয়ায় বললেন, কিশোরগঞ্জের দুর্ভাগ্য যে এই প্রথমবারের মতো কোন মন্ত্রী নেই।

জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম এ আফজল বলেন, আপাতত কিশোরগঞ্জে কোন মন্ত্রী নেই। আগে যারা ছিলেন তারাও বাদ পড়েছেন। তবে আমরা আশাবাদী হয়তো কোন চমক আসতে পারে।

জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক পিপি অ্যাডভোকেট শাহ আজিজুল হক বলেন, সরকারই হলো কিশোরগঞ্জ আর গোপালগঞ্জের।

কিশোরগঞ্জের রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ আর গোপালগঞ্জের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন। তবে মন্ত্রীসভায় কিশোরগঞ্জের কোন মন্ত্রী ঘোষণা না করায় হয়তো চমক আছে। আমরা অপেক্ষায় আছি কি সেই চমক।

জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল আজিজ বলেন, আমরা কিশোরগঞ্জবাসী এতটাই দুর্ভাগ্য যে মন্ত্রীনভায় এই প্রথম মন্ত্রী শুন্য হলো কিশোরগঞ্জ। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে একজন পুর্ণাঙ্গ মন্ত্রী চাই।

যুদ্ধাপারাধ মামলার স্বাক্ষী সুরক্ষা কমিটির আহবায়ক রেজাউল হাবীব রেজা বলেন, স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর মন্ত্রী শূণ্য কিশোরগঞ্জ আমরা মেনে নিতে পারি না। স্বাধীনতার পর আওয়ামীলীগ বিএনপি জাতীয় পার্টিসহ যেকোন দলেরই হোক না কেন কোন না কোন মন্ত্রী পেয়েছিলো কিশোরগঞ্জ। কিন্ত বর্তমান সরকারের আমলে এই প্রথম মন্ত্রী শুন্য হলো কিশোরগঞ্জ।

পাকুন্দিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক মো: রফিকুল ইসলাম রেনু বলেন, আমাদের কটিয়াদী পাকুন্দিয়া আসনের সংসদ সদস্য সাবেক আইজিপি নুর মোহাম্মদ সাহেবকে মন্ত্রী হিসেবে আশাবাদী ছিলাম। তবে এ নিয়ে গুঞ্জন চলছে। আমরা পেতেও পারি একজন মন্ত্রী।

সূত্র : মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ

সর্বশেষ