শিরোনাম

সোমবার ময়মনসিংহে ১১ প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তি স্থাপন করবেন আইজিপি ডঃ জাবেদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৮:৫৫:১৯ অপরাহ্ণ - ০২ মার্চ ২০১৯ | ২৫

আইজিপি ডঃ জাবেদ পাটোয়ারী ময়মনসিংহ আসছেন সোমবার
৩১ কোটি টাকা ব্যয়ে ১১ প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তি স্থাপন করবেন।

আগামী ৪ মার্চ বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ডঃ মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, বিপিএম (বার) ময়মনসিংহ আসছেন। ময়মনসিংহে পুলিশ সুপার (এসপি) অফিসের বহুতল ভবনসহ প্রায় ৩১ কোটি টাকা ব্যয়ে ১১টি প্রকল্প ঐ দিন তিনি উদ্বোধন করবেন। বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক ময়মনসিংহে আগমনকে উপল্েয জেলা ও রেঞ্জ পুলিশের প থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। আইজিপি ময়মনসিংহ জেলা ও রেঞ্জ পুলিশের বিভিন্ন প্রকল্প উদ্বোধনশেষে জেলার বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগীতার উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ করবেন। এছাড়া সন্ধ্যায় পুনাক ময়মনসিংহের আয়োজনে পুলিশ পরিবারের কৃতি শিার্থীদের মাঝে শিা বৃত্তি প্রদান করবেন বলে জানা গেছে।

ডঃ জাবেদ পাটোয়ারী চাঁদপুর জেলার সদরের মান্দারী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ৬ষ্ঠ বিসিএস-এ (১৯৮৪) পুলিশ ক্যাডারে মেধা তালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করে ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিসে যোগদান করেন। বাবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করে জাবেদ পাটোয়ারি উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণীতে ভর্তি হন চাঁদপুর সরকারি কলেজে। পরবর্তীতে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজকল্যাণ বিষয়ে স্মাতক সম্মান এবং প্রথম শ্রেণীতে স্মাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন তিনি। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগ হতে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। তাঁর গবেষণার বিষয় ছিল “কমব্যাটিং টেরোরিজম ইন বাংলাদেশ: চ্যালেঞ্জেস অ্যান্ড প্রসপেক্টস। এছাড়া তিনি যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব লিচেস্টার থেকে “ক্রিমিনাল জাস্টিস অ্যান্ড পুলিশ ম্যানেজমেন্ট” বিষয়ে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন সার্টিফিকেট এবং যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ভার্জিনিয়া থেকে ক্রিমিনাল জাস্টিস এডুকেশন বিষয়ে সার্টিফিকেট অব অ্যাচিভমেন্ট অর্জন করেন। এছাড়া তিনি যুক্তরাজ্যের পুলিশ স্টাফ কলেজ থেকে এবং যুক্তরাষ্ট্রের এফবিআই ন্যাশনটাল একাডেমি, ভার্জিনিয়া থেকে উচ্চতর পেশাগত প্রশিণ গ্রহণ করেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইউএস-সাউথ এশিয়া লিডার অ্যাংগেজমেন্ট প্রোগ্রাম সম্পন্ন করেছেন।
বিসিএস ১৯৮৪ ব্যাচের এ দায়িত্বশী পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে ১৯৮৬ সালে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে পুলিশে যোগদান করেন। কর্মজীবনে তিনি বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটে কাজ করেছেন। ২০১৩ সালের জুলাই মাসে জাবেদ পাটোয়ারীকে সচিব পদমর্যাদায় গ্রেড-১ পদে পদোন্নতি লাভ করেন। তিনি এডিশনাল আইজি (গ্রেড-১) স্পেশাল ব্রাঞ্চ, এডিশনাল আইজি সিআইডি, এডিশনাল আইজি পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স, পুলিশ কমিশনার রাজশাহী, পুলিশ কমিশনার খুলনা, ডিআইজি সিআইডি, কমান্ড্যান্ট-পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার নোয়াখালী, কমান্ড্যান্ট-পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার রংপুর, পরিচালক-পুলিশ স্টাফ কলেজ, এসএস নগর বিশেষ শাখা ঢাকা, এডিসি ডিএমপি, স্টাফ অফিসার টু আইজিপি, এডিশনাল এসপি সিলেট, মহামান্য রাষ্ট্রপতির পুলিশ লিঁয়াজো অফিসার এবং এএসপি নেত্রকোণা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আন্তর্জাতিক কর্মেেত্র জাবেদ পাটোয়ারী জাতিসংঘ শান্তিরা মিশন সুদানে উপ-পুলিশ কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত), জাতিসংঘ শান্তিরা মিশন কসোভোতে মিসিং পার্সন ইউনিটের প্রশাসন বিভাগের প্রধান, জাতিসংঘ শান্তিরা মিশন সিয়েরালিওনে ইউএন প্রটেকশন ফোর্সের অপারেশন প্রধান এবং ক্রোয়েশিয়াতে স্টেশন কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী সারদা, রাজশাহী, পুলিশ স্টাফ কলেজ ঢাকা, ডিটেকটিভ ট্রেনিং স্কুল ঢাকা, স্কুল অব ইন্টেলিজেন্স স্পেশাল ব্রাঞ্চ ঢাকা, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়ের একজন রিসোর্স পার্সন হিসেবে বিভিন্ন বিষয়ে পাঠদান করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে ‘ভিক্টিমোলোজি এন্ড রেষ্টোরেটিভ জাাস্টজ বিষয়ে এবং টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাষানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলোজি এন্ড পুলিশ সায়েন্স বিভাগের একজন ভিজিটি (ফ্যাকাল্টি)। ব্যক্তি জীবনে তিনি বিবাহিত এবং দুই ছেলে এক মেয়ের জনক।

বাংলাদেশ পুলিশের এ গুনী ব্যক্তিত্ব আগামী ৪ মার্চ সড়কপথে সকাল ১১টায় ময়মনসিংহ আসার কথা রয়েছে। পুলিশ অফিস সুত্রে জানা গেছে, আইজিপি ময়মনসিংহ জেলা ও রেঞ্জ পুলিশের সার্বিক উন্নয়নে প্রায় সাড়ে ১৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬টি বহুতল ভবনসহ উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন। এ সকল প্রকল্পগুলো হলো, ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের নবনির্মিত অফিস, ব্যয় ৮ কোটি ১১ লাখ ৬৯ হাজার টাকা, পুলিশ অফিসার মেস-১, ব্যয় ৪ কোটি ৪৯ লাখ ৭৩ হাজার টাকা, পুলিশ লাইন্স ব্যারাক-২, প্রকল্প ব্যয় ৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা, প্রফেশনাল ইভালেশন সফটওয়ার (পিইএস) নামক একটি সফটওয়ার ও পুনাক ময়মনসিংহের শোরুম উদ্বোধন করেবন। এছাড়া তিনি ১২ কোটি ৭ লাখ ৭৬ হাজার টাকা ব্যয়ে ৫টি বহুতল ভবনসহ প্রএল্পর ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন।

উল্লেখিত প্রকল্পগুলো হলো, পুলিশ লাইন্সে মাল্টি পারপাস ড্রিলশেড, ব্যয় ৩ কোটি ৫৬ লাখ ৭৪ হাজার টাকা, পুলিশ হাসপাতালের ডরমেটরী ভবন, ব্যয় ২ কোটি ৮০ লাখ টাকা, পুলিশ বেতার ভবন (টেলিকম ভবন), ব্যয় ২ কোটি ৯৫ লাখ ৬৮ হাজার টাকা, পাগলা থানার অফিসার্স ডরমেটরী (ভবন), ব্যয় ১ কোটি ৬১ লাখ টাকা এবং পাগলা থানার ওসির বাসভবন, ব্যয় ১ কোটি ১৫ লাখ ৩৪ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রকল্প সমুহের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করবেন। এ সব প্রকল্প সমুহ পুলিশ অফিসার মেস থেকে একযুগে উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করা হবে।

সর্বশেষ