শিরোনাম

সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া দুঃখজনক হলেও স্ট্যাটাস দেবেন না

সর্বশেষ আপডেটঃ ১১:১৪:১০ অপরাহ্ণ - ১৯ আগস্ট ২০১৮ | ১৭

দীর্ঘ কিংবা অল্পদিনে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া দুঃখজনক। নারী কিংবা পুরুষের জন্য হতাশারও। অনেকই জেদের বসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার প্রেমের দুঃসময়গুলো তুলে ধরেন অশালীনভাবে। আবার কেউ দুঃখের সময়গুলো শেয়ার করতে নানারকম কথাবার্তা লেখেন। এ কাজগুলো ব্যক্তিজীবনে দারুণ প্রভাব ফেলে। নারী কিংবা পুরুষ দুজনেরই ব্যক্তিত্বকে দুর্বল করে দেয়।

লাইফস্টাইল বিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েব পোর্টাল বোল্ডস্কাই এ ধরণের প্রবণতা থেকে দূরে থাকতে কয়েকটি টিপস দিয়েছ। সেগুলো হলো…

১. রাগ থেকে ব্যক্তিগত চ্যাটের স্ক্রিনশট অথবা অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করবেন না। এতে ব্যক্তিত্বের গ্রহণযোগ্যতা কমে যায়। সোজা কথায় নিজের আবেগ ধরে রাখুন। ফেসবুক, টুইটার বা অন্যান্য মাধ্যমে সম্পর্ক ভাঙা নিয়ে কোনো স্ট্যাটাস দেবেন না।

২. ফেসবুক বা অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যমে প্রাক্তন সঙ্গী বা বন্ধুর সঙ্গে প্রকাশ করা মুহূর্তগুলো বারবার দেখা বন্ধ করুন। এটা আপনার মনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। এমন পরিস্থিতিতে নিজেকে শক্ত করুন।

৩. ব্যক্তিগত হতাশা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ না করাই ভালো। বারবার নিজের অনুভূতি ও হতাশা প্রকাশ করতে থাকলে অন্যরা বিরক্ত হবেন।

৪. স্বাভাবিক হওয়ার জন্য কাছের বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটান। কোথাও ঘুরতে কিংবা সিনেমা দেখতে যেতে পারেন। তবে সেসব মুহূর্তের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করবেন না। প্রকাশিত ওই সব ছবিতে কেউ নেতিবাচক মন্তব্য করলে ফের কষ্ট পাবেন।

৫. প্রাক্তন সঙ্গী বা বন্ধু আপনার প্রোফাইল ও কর্মকাণ্ড দেখছে- এ চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন। কারণ এ চিন্তাই তাকে উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন পোস্ট দিতে আপনাকে প্ররোচিত করবে। এতে সাময়িক ভালোলাগা এলেও আপনার ক্ষতিই বেশি করবে।

৬. প্রাক্তন বন্ধু ও তার আশেপাশের মানুষের প্রোফাইল দেখা বন্ধ করুন। এতে করে আপনার মধ্যে আরও হতাশা কমবে।

৭. নিজের মতো সময় কাটান। এ সময় শিশুসুলভ আচরণ করবেন না। নিজের অভ্যন্তরীণ বোধ প্রকাশ করবেন না। স্বাভাবিক চালচলন বজায় রাখুন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর