শিরোনাম

সন্তানের যে প্রশ্নের উত্তর দিতে পারছেন না সেই ইউএনও

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৮:৫৫:২৯ অপরাহ্ণ - ২৬ জুলাই ২০১৭ | ১৭৭

বরগুনার সদর উপজেলার ইউএনও গাজী তারিক সালমনের একমাত্র পুত্রসন্তান ঈশান। পাঁচ বছরের শিশু ঈশান কয়েকদিন আগে টিভিতে দেখেছে, তার বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে। এ সময় সে তার মাকে প্রশ্ন করেছে, ‘মা, আমার বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে কেন? বাবা কি দুষ্টু?’ এ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি ইউএনও সালমনের স্ত্রী তনু। প্রশ্নটি সালমনের মনেও দাগ কেটেছে।

এ বিষয়ে সোমবার সকালে তিনি ফেসবুকে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন। এতে ইউএনও সালমন লেখেন-

”ওর নাম রেখেছি ‘তরুণ ঈশান’। নজরুলের কবিতা থেকে। আমার একমাত্র সন্তান। বয়স পাঁচ ছুঁই-ছুঁই। সে একটা প্রশ্ন করেছে তার মাকে। সেই প্রশ্নের উত্তর এখনো পায়নি সে। টিভিপর্দায় সে দেখেছে যে তার বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে। সে জানে, পুলিশ দুষ্টু লোকদেরই ধরে শুধু (কারণ সে মাঝেমধ্যে ‘ক্রাইম পেট্রল’ দেখে সনি আট চ্যানেলে)।

ঈশান জিজ্ঞাসা করেছে তার মাকে, ‘আমার বাবাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাচ্ছে কেন? বাবা কি দুষ্টু?’। তনু, আমার স্ত্রী, এই প্রশ্নটির জবাব দিতে পারেনি তার ছেলেকে এখনো।
এই প্রশ্নের উত্তরটি আমরা খুঁজছি।”

তার স্ট্যাটাসের নিচে অনেকেই দুঃখ প্রকাশ করেছেন, অনেকে শান্ত্বনা দিয়েছেন, কেউ কেউ আবার মামলা দায়েরকারী, প্রশাসন ও ক্ষমতাসীন দলের প্রতি ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

গত ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারীদের আঁকা ছবি দিয়ে স্বাধীনতা দিবসের কার্ড করার ঘোষণা দেন আগৈলঝড়ার তৎকালীন ইউএনও গাজী তারেক সালমন।

সে ঘটনায় জাতীয় পর্যায়ে ব্যাপক অালোচিত হয়েছে এবং প্রশাসনিক সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ