শিরোনাম

ময়মনসিংহ সদরে প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসকের অবহেলায় নবজাতক মৃত্যু,গ্রেফতার ৪

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৫:০০:৪৭ অপরাহ্ণ - ২২ জানুয়ারি ২০১৯ | ৭৬

স্টাফ রিপোর্ট:ময়মনসিংহ নগরীর বেসরকারি পরশ প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসকের অবহেলায় নবজাতক মৃত্যুর ঘটনায় ওই হাসপাতালের ডা. শিশিরকে (৩৪) প্রধান আসামি ও নার্স এবং পরিচালকসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় এক নারী সেবিকা ও ৩ পরিচালকসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে অভিযুক্ত ওই চিকিৎসককে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) সকাল ১১ টার দিকে গ্রেফতার চার জনকেই আদালতে পাঠানো হয়েছে। তারা হলেন, পরিচালক রেজাউল কবীর, শফিকুর রহমান জনি, আজাহার মামমুদ জুয়েল ও জৌষ্ঠ সেবিকা অলিম্পিয়া।

সোমবার (২১ জানুয়ারি) রাতে কোতুয়ালী মডেল থানায় মৃত নবজাতকের বাবা হারুনুর রশিদ বাদি হয়ে অভিযুক্ত চিকিৎসক ডা. শিশিরকে প্রধান আসামি করে ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পরে রাতে অভিযান চালিয়ে নার্স ও আরেক পরিচালককে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর আগে দুই পরিচালকে গ্রেফতার করা হয়।

জানা যায়, গত রবিবার (২০ জানুয়ারি) রাতে সদর উপজেলার কল্যাণপুর এলাকার হারুনুর রশিদ তার প্রসুতি স্ত্রী জান্নাত বেগমকে শহরের কৃষ্টপুর এলাকার পরশ হাসপাতালে ভর্তি করেন। রাত সাড়ে এগারটার পর হারুনের স্ত্রীকে সিজার করে একটি ছেলে সন্তান দেখানো হয় স্বজনদের। কিছুক্ষণ পরেই বলা হয় হারুনের মৃত সন্তান হয়েছে। এ সময় নবজাতকের বাবা দেখতে পান তার ছেলের মুখ ও শরীর রক্তাক্ত, জখম এবং পিঠের চামড়া নেই।

পরে নবজাতকের মৃতদেহ কোলে নিয়ে বিষয়টি জানাতে সকাল ১১ টার দিকে কোতয়ালি মডেল থানায় যান বাবা হারুনুর উর রশিদ। এরপর থানায় একটি অভিযোগ দেন তিনি। অভিযোগের ভিত্তিতে থানার এস আই পলাশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই হাসপাতালটি পরিদর্শন করেন।

এদিকে নিহত নবজাতকের বাবা হারুনুর উর রশিদ অভিযোগ করে বলেন, তার জীবিত সন্তান হয়েছে। তার ভাইয়ের কাছে পুরাতন কাপড়ে পেচানো মৃত সন্তান দেয়া হয়েছে। চিকিৎসকের অবহেলায় তার সন্তানের মৃত্য হয়েছে দাবি করে দায়ীদের বিচার চান হারুন।

অন্যদিকে সরেজমিনে হাসপাতালে গিয়ে কোন চিকিৎসককে পাওয়া যায়নি। এসময় কর্তব্যরত নার্স অলিমা প্রিয়া সাংবাদিকদের বলেন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের (মমেক) হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. শিশির অপারপশন (সিজার) করেছেন এবং অজ্ঞানের চিকিৎসক ডা. ছিলেন ডা. তানভীর। আটক পরিচালক শফিকুর রহমান জনি জানান, চিকৎসকরা অপারেশন করে মৃত বাচ্চাই বের করে আনেন।

সর্বশেষ