শিরোনাম

“ময়মনসিংহে প্রতিমা দর্শনকে স্মরণীয় করে রাখতে সেলফি মহিমায় পূন্যার্থীরা”

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:০৬:৩২ অপরাহ্ণ - ১০ নভেম্বর ২০১৮ | ২২
সামনে থেকে সরুন, ছবি পরে তুলবেন। আমাদের একটু প্রতিমা দর্শন করতে দিন। ‘- এবছর সব মন্ডপেই শোনা গেল এই আকুতি। এমনই মহিমা ‘সেলফি’-র।
শনিবার ১০ নভেম্বর ময়মনসিংহ নগরীর মন্ডপ গুলোতে দেখাযায় দর্শনার্থীরা ঢুকে কেউ আর নিজের চোখে প্রতিমা দর্শন করছেন না। ঢোকার আগেই অন হয়ে যাচ্ছে মোবাইলের ক্যামেরা। আর লাইনে দাঁড়িয়েই চলছে সেলফি তোলা।
এসময় ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. ইকরামুল হক টিটুসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দদের নিয়ে মন্ডপ পরিদর্শন করতে আসেন।
ময়মনসিংহের জননন্দীত এই সাবেক মেয়রকে কাছে পেয়ে ঠেলেঠুলে প্রতিমার সামনে গিয়ে দাঁড়িয়েই সেলফি তোলে ঠাকুরকে নিয়ে নিজেকে ফ্রেম বন্দী করছে। একজন ছবি তুলতেই ইকরামুল হক টিটুকে ঘিরে বেশ কয়েকজনের ভিড়। কেউ বন্ধুর সঙ্গে, কেউ বাবা-মার সঙ্গে সেলফিতে মত্ত।  নগরীর মন্ডপ গুলোতে এবার চোখে পড়ল এমনই কিছু টুকরো টুকরো দৃশ্য।
এবছর ময়মনসিংহ শহরের পূজা মন্ডপ গুলোতে প্রতিদিনই ভিড় জমান ভক্ত পূন্যার্থীরা। এতে শুধু সনাতন ধর্ম্বাবলম্বীরাই কেবল নয়, মন্ডপগুলো ভিড় জমান নানান বর্ণের মানুষও। এদের মধ্যে কেউবা মুসলিম আবার কেউবা খ্রিষ্টান। এ যেন সম্প্রতির বিজয়। প্রতিদিনই মন্ডপে এসে আনন্দে মেতে উঠে ছেলে বুড়ো সবাই। কেউ করে নাচানাচি আবার কেউবা করে সেলফি বাজি। সেলফি আর ছবিতে মন্ডপে মন্ডপে আমেজের শেষ নেই।
নতুন প্রজন্মের অনেকেই সাথেই কথা বলে জানা গেছে কেউ আনন্দের মুহূর্তেটাকে ধরে তুলছেন সেলফি আবার কেউবা ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জানান দিচ্ছে সমগ্র বিশ্বকে।
শহরে সবচে প্রাচীন মন্দির দুর্গাবাড়ী নন্দ পারিজাত সৃতি পরিষদের রাজন রয় বলেন, বছরের এই সময়টাতেই আমরা পূজোতে মজা করে থাকি। আর মায়ের সাথে সেলফি তুলে রাখি। পুজো ফুরিয়ে গেলেও সেলফি গুলো স্মৃতি হিসেবে রয়ে যায়।
ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মো. ইকরামুল হক টিটু বলেন, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় আজ কাচারীঘাট ব্রহ্মপুত্র নদে প্রতিমা বিসর্জন চলছে। এই উৎসব সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মাধ্যমে বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্যকে তুলে ধরে। তৈরি হয় সামাজিক মেলবন্ধন।
সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর