শিরোনাম

মহাজোট প্রার্থীদের বিজয়ী করতে ময়মনসিংহে গ্রামের পর গ্রামে ছুটে বেড়াচ্ছেন রকিব

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৫:২৭:৩২ পূর্বাহ্ণ - ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৩৩৩

মো. মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী,ময়মনসিংহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করতে গ্রামের পর গ্রাম ছুটে বেড়াচ্ছেন এবং বাংলাদেশের পথে পথে উন্নয়নচিত্র, সুন্দর রাস্তা, বিভিন্ন শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়নসহ দেশের উন্নয়নে নিরলস পরিশ্রম করে যাওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বরূপ নৌকায় ভোট দিয়ে ঋণ শোধের আহ্বান জানান বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর শ্রেষ্ট সংগঠক ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব।

শনিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত মহাজোটের প্রার্থী ময়মনসিংহ-৫ (মুক্তাগাছা) আসনের সাবেক সংসদ আলহাজ্ব কে এম খালিদ বাবুর পক্ষে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে সরকারের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করেন।

ছাত্রলীগ সুত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নির্দেশ মোতাবেক সারা দেশের ৮টি বিভাগে বিভাগীয় নির্বাচনী ও সমন্বয় কমিটি’ গঠন করা হয়েছে। ময়মনসিংহ বিভাগে নির্বাচনকালীন দায়িত্ব পালন করছেন ছাত্রলীগ নেতা শামস ই নোমান ও সোহান খান। এর ধারাবাহিকতায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও স্বানীয় ছাত্রলীগ নেতাদের সাথে নিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন এবং প্রধানমমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে গড়া উন্নয়ন আরো অব্যাহত রাখতে ৩০ ডিসেম্বর নৌকায় ভোট দিতে গণসংযোগ করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রেষ্ঠ সংগঠক হিসাবে পুরস্কার প্রাপ্ত জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব।

জানতে চাইলে মুক্তাগাছা উপজেলার স্বানীয় তরুণ ভোটারা বলেন, আলহাজ্ব কে এম খালিদ বাবু সত্যিকারের মুজিব আদর্শের একজন সৈনিক। তিনি যেভাবে ঘরে ঘরে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চাইছেন তা ব্যতিক্রম। প্রতিটি ভোটারের বাড়িতে গিয়ে নৌকার জন্য ভোট প্রার্থনা করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি। তার এ কর্মকাণ্ডে আওয়ামী লীগের মর্যাদা যেমন বেড়েছে, তেমনি অনেক তরুণ কর্মী পেয়েছে দল।

মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব বলেন,  মুজিব আদর্শকে ধারণ করে পরিশ্রম, মেধা ও সাংগঠনিকভাবে একজন দক্ষ নেতা হিসাবে বিগত দিনগুলোতে সরাসরি মাঠে থেকে বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়ন দেখেছি। দলকে ভালোবাসি, তাই ময়মনসিংহের সকল মহাজোটের প্রার্থীদের পক্ষে ভোট প্রার্থনা করছি গ্রামের পর গ্রামে প্রত্যেক ভোটারের বাড়ি গিয়ে। তাদের জানাচ্ছি, প্রধানমন্ত্রী সাধারণ মানুষের জন্য কি করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে রকিব আরও বলেন, নৌকায় ভোট দিয়ে দেশের উন্নয়নে নিরলস পরিশ্রম করে যাওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঋণ শোধ করার সময় ৩০ ডিসেম্বর। তাই তরুণদের প্রথম ভোট নৌকা মার্কায় হোক।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর