শিরোনাম

মন্দির থেকে দেবতার স্বর্ণমুকুট চুরি

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৪:০০:৩০ অপরাহ্ণ - ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৭১

চুরি হয়ে গেল দেবতার সোনার মুকুট। তাও আবার তিরুপতি মন্দিরের দেবতার। জানা গেছে, তিনটা দুর্মূল্য এবং দুষ্প্রাপ্য রত্নখচিত সোনার মুকুট চুরি হয়েছে তিরুপতি মন্দির চত্বরের শ্রী শ্রী গোবিন্দরাজাস্বামী মন্দির থেকে। তিরুপতি মন্দির চত্বরের অন্যতম বড় মন্দির এটি।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার। মন্দিরের পুরোহিতরা প্রথম খেয়াল করেন শ্রী শ্রী গোবিন্দরাজাস্বামী মন্দিরের তিন দেবী মালয়াপ্পা, ভূদেবী এবং শ্রী দেবীর মাথায় মুকুট নেই। সঙ্গে সঙ্গেই খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, সম্ভবত শনিবার সন্ধ্যায় প্রসাদ বিতরণের সময়েই চুরি হয়েছে এই তিনটি মুকুট।

মন্দিরের সুপারিনটেন্ডেন্ট শ্রী জ্ঞান প্রকাশ জানিয়েছেন, চুরি যাওয়া তিনটি মুকুটের ওজন ১৩০০ গ্রামের বেশি। মালয়াপ্পার মুকুটের ওজন প্রায় ৫২৮ গ্রাম, শ্রী দেবীর মুকুট প্রায় ৪০৮ গ্রাম এবং ভূদেবী মুকুটের ওজন প্রায় ৪১৫ গ্রাম। দ্বাদশ শতাব্দীতে তৈরি হয়েছিল এই মন্দির।

জানা গেছে প্রতিদিনের মতোই শনিবার বিকেলেও ৫টায় ভক্তদের জন্য মন্দিরের দরজা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এরপর নিয়ম অনুযায়ী ৪৫ মিনিট পর ফের খোলা হয় মন্দিরের দরজা। আর তারপরেই মন্দিরের পুরোহিতরা খেয়াল করেন উধাও হয়েছে তিন দেবতার মাথার মুকুট। মন্দির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পুজোর কাজের সময়ে প্রত্যেক পুরোহিতেরই পালা বদল হয়। আর এই পালা বদল বা শিফট চেঞ্জের সময়েই সম্ভবত চুরি গিয়েছে তিনটি মুকুট।

ভারতের অন্যতম জাগ্রত মন্দির হলো এই তিরুপতি মন্দির। মূল মন্দির এবং উপমন্দিরের দেবদেবীদের পরনে থাকে ভারী সোনার অলঙ্কার। সারা বছরই মন্দির চত্বর মুড়ে রাখা হয় কড়া নিরাপত্তায়। কিন্তু এই নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা পেরিয়েও কীভাবে এত বড় চুরি হলো তিরুপতি মন্দিরে আপাতত তার তদন্তেই নেমেছে পুলিশ। তদন্তকারী অফিসাররা জানিয়েছেন, মন্দির চত্বরের সিসিটিভি ফুটেজ ক্ষতিয়ে দেখছেন তাঁরা।

এই চুরির ঘটনায় মন্দিরের কেউ জড়িত রয়েছেন কিনা সে ব্যাপারেও তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনার সময় মন্দির চত্বরে উপস্থিত সকলকে ইতিমধ্যেই জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।

সর্বশেষ