শিরোনাম

প্রতিহিংসার শিকার ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের উপ-সম্পাদক নেতা !

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৯:০২:২৭ অপরাহ্ণ - ২৩ মে ২০১৮ | ১৯১
নেত্রকোনা প্রতিনিধি : বহুল আলোচিত বগুড়ার শহরে সেই মা ও মেয়েকে ধর্ষণ ও মাথা ন্যাড়ার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার নেত্রকোনায় ছাত্রলীগ নেতার মাথার চুল প্রকাশ্যে পুলিশের সামনেই ন্যাড়া করে দিল সরকার দলীয় এমপি সমর্থকরা।প্রতিহিংসার শিকার ছাত্রলীগ নেতা পূর্বধলা ৫ আসনের আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ইঞ্জিনিয়ার তুহিন আহম্মদ খানের সমর্থক স্বপন চন্দ্র দাস। সে পূর্বধলা উপজেলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এলাকার বাসিন্দা এবং পূর্বধলা ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের উপ-সম্পাদক।
শুক্রবারের (১৮ মে) এ ঘটনার পর রবিবার (২০ মে) সকালে নেত্রকোনা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছেন তিনি।
গতকাল ১৮ ই মে শুক্রবার বিকালে লন্ডন প্রবাসী ইঙ্জিনিয়ার তুহিন আহম্মদ খানের আয়োজনে ডাকা ইফতার পার্টিতে যোগ দেওয়ার সময় চৌরাস্তা বাজার নামক স্হানে এ ঘটনাটি ঘটে।এ সময় তার সাথে অারও ৭/৮ জন ছাত্রলীগের কর্মী  জীবন বাঁচাতে অটো রিক্সা থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায় এবং প্রকাশ্যে পুলিশের সামনেই তাকে ধরে মধ্যযুগীয় কায়দায় তার চুল ক্ষুর দিয়ে ছেঁটে ফেলে।এ সময় ঘটনাস্হলের পাশেই পুলিশ টহল থাকলেও কোন ধরনের ব্যবস্হা গ্রহন করে নাই বলে জানান এই ছাত্রলীগ নেতা।
পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগে তিনি বলেন, এমপি মহোদয়ের ছত্রছায়ায় থাকা উপজেলা আ,লীগ নেতা মাসুদ আলম টিপু,নুরুল আমিন শওকত,বিপুল, আবদুল মোমেনরা আমাদের পথ রোধ করে দাড়ায় এবং আমার শরীরে বিভিন্ন স্হানে শাররিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে।পরে সন্ত্রাসীরা আমার মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয় এবং হুমকি দেয় যে এর পর যদি আর তুহিনের সাথে দেখি তাহলে মেরে বস্তায় ভরে মাছের খাবার বানিয়ে পাঠিয়ে দেব।
যার বিরুদ্ধে অভিযোগ, সেই আ,লীগ নেতা মাসুদ আলম টিপু নতুন বার্তাকে বলেন, এটা আমার বিরুদ্ধে আরেকটা নতুন নাটক সাজানো হচ্ছে।আমি স্বপন নামে কাউকে চিনি না।
মাথা ন্যাড়ার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী বলেন, অভিযোগটি আমিও শুনেছি, কাগজ হাতে পেলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্হা নেয়া হবে।
সর্বশেষ