শিরোনাম

পরাজয় হয়েছে ঝন্টুর সীমাহীন দূর্নীতি ও অসাদাচারণের : প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গা

সর্বশেষ আপডেটঃ ০২:৩২:১৩ অপরাহ্ণ - ২২ ডিসেম্বর ২০১৭ | ২২২

বহুল আলোচিত রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) এর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ বা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরাজয় হয় নি। পরাজয় হয়েছে ঝন্টুর সীমাহীন দূর্নীতি ও অসাদাচারণের।

বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) রাতে রসিক নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থীর কাছে বিশাল ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও সাবেক মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু পরাজয় নিশ্চিত হয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে এই মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি।

রসিক নির্বাচনে জাপার প্রধান সমন্বয়ক রাঙ্গা বলেন, ঝন্টু সাহেব শ্যামাসুন্দরী খাল, চিকলীর বিলসহ বিভিন্ন প্রকল্পে সীমাহীন দূর্নীতি করেছেন। জনগণ কোন সমস্যা নিয়ে তার কাছে গেলে তাদের সাথে তিনি খারাপ আচরণ করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে রংপুরের জনগণ নীরব ব্যালট বিপ্লবের মাধ্যমে এরশাদের তথা জাতীয় পার্টির লাঙ্গলকে জয়যুক্ত করেছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মীদের নিরলস পরিশ্রমের ফসল রসিক নির্বাচনে লাঙ্গল প্রতীকে মোস্তফার এ বিজয় নিশ্চিত হয়েছে। নব নির্বাচিত মেয়র মোস্তফাকে রংপুর সিটির উন্নয়নে সার্বিক সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিয়ে রাঙ্গা  লাঙ্গলের এ বিজয়ের জন্য মহানগরের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান।

উল্লেখ্য, রংপুর সিটি করপোশনের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুকে হাজার ভোটের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত লাঙ্গল প্রতীকে দ্বিতীয় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। এরআগে ২০১২ সালের ২০ ডিসেম্বর রংপুর সিটিতে প্রথম ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। দলীয় প্রতীকহীন ওই নির্বাচনে হাঁস প্রতীকে সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু ১ লাখ ৬ হাজারেরও বেশি ভোট পেয়ে প্রথম নগরপিতা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন মোটরসাইকেল প্রতীকে মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। এবারো সেই মোস্তফা ও ঝন্টুর মধ্যে দ্বিমুখী লড়াই দেখলেন রংপুরবাসী।

সর্বশেষ