শিরোনাম

“নেত্রকোনা ১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ‘রুহীর’ দূর্গাপুর-কলমাকান্দাবাসীর জন্য ১২ দফা”

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৬:০০:৪৭ অপরাহ্ণ - ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ২,১৮২

নেত্রকোনা ১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী রুহীর দূর্গাপুর -কলমাকান্দাবাসীর জন্য ১২ দফার ব্যতিক্রম ঘোষনা এলাকায় ঘরে ঘরে সাড়া পড়েছে ও জনসাধারনকে নতুন করে উজ্জীবিত করেছে ।

—— সাবেক জনপ্রিয় ছাত্রনেতা ও নবম সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোশতাক আহমেদ রুহী জনতার প্রতিদিন কে তাঁর দেওয়া বিশেষ সাক্ষাৎকারে বলেনঃ আগামীতে জনগণের খেদমত করার সুযোগ পেলে অতীতের মতই ১২ দফা বাস্তবায়নের কথা ।

দফাগুলো নিন্ম রূপঃ

১/ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা , ন্যায় বিচার , শান্তি ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা ।

২/ তৃণমূল , ত্যাগী ও প্রবীণদের মূল্যায়ন ।

৩/ রেল সম্প্রসারণ ও সড়ক যোগাযোগসহ আমার গৃহীত অসমাপ্ত বহুমুখী উন্নয়ন কাজ ও প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন এবং দূ্র্গাপুর – কলমাকান্দা পর্যটন প্রকল্প ।

৪/ অসহায় মানুষের চিকিৎসা ও অন্যান্য উপকার এবং আয়ের খাত সৃষ্টি ।

৫/ গরীব শিক্ষার্থীদের সহায়তা ।

৬/ সৎ , ন্যায় চিন্তা এবং সৃষ্টিশীল মানুষগুলোকে উজ্জীবিত করা ও সমাজ টাউটমুক্ত করা ।

৭/ কৃষক ও শ্রমিকের আয় নিরাপত্তা ।

৮/ শোষণমুক্ত ব্যবসাবান্ধব পরিস্থিতির বিকাশ ।

৯/ মাদক , দূর্নীতি-ঘুষ , জুয়া ও সন্ত্রাস- হানাহানি মুক্ত করা ।

১০/ এলাকায় অসাম্প্রদায়িক চেতনার মূল্যবোধ স্থাপন ।

১১/ জনপ্রতিনিধিদের প্রতি জনগনের আস্থা , ভরসা ও বিশ্বাস প্রতিষ্ঠা করা ।

১২/ সাধারণ মানুষের সুপ্ত ইচ্ছাগুলো অনুযায়ী সমাজের অসঙ্গতিগুলো দূর করা ।

ঘোষিত ১২দফার প্রতিক্রিয়ায় স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ জানিয়েছেন – তৃণমুল কর্মী বললেন ১২ দফার মাঝে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও তৃণমূল ত্যাগী প্রবীণ ব্যক্তিদের মূল্যায়ন উল্লেখ আছে, এতে করে ( দু:সময়ের ত্যাগী ) মোশতাক আহমেদ রুহী যদি মনোনয়ন নিয়ে আসে আমরা আগামী দিনে রাজনীতি করার আগ্রহ ও ভরসা পাবো। নবম সংসদের এমপি থাকা অবস্থায় রুহীর কর্মকান্ডে উল্লেখিত ১২ দফার প্রতিফলন ছিল বলেই তিনি এত জনপ্রিয় । মানুষ তাকে ভূলতে পারে না ।

কৃষ্ণেরচড় বাজারের এক যুবক বললেন তরুন প্রজন্ম যুবকদের নিয়ে রুহী ভাইয়ের সব সময় বিশেষ পরিকল্পনা থাকে। জয়নগর বাজারের এক প্রবীন কৃষক বললেন রুহী হইলো পরোপকারী ও সৎ – সব সময় গরিবদের লাইগ্যা কল্যাণকর। হের সময় সার বীজ তেল কীটনাশক এর সমস্যা হয় নাই।শেখ হাসিনা গরীবদের যে বরাদ্দ দিছিলো রুহীর সময় গরীবরা তা ঠিক মত পাইছে ।

সুসং ডিগ্রী কলেজের এক শিক্ষার্থী বললেন ১২ দফায় গরিব শিক্ষার্থীদের সুযোগ-সুবিধার দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। গরিব অসহায়দের কথা কেউ চিন্তা করে না, রুহী ভাই আগেও করেছেন এখনও করেন এতে আমরা সবাই ধন্য। বিরিশিরির সাধারণ পথচারী বললেন ১২ দফার মাঝে আছে টাউট মুক্ত, সন্ত্রাস -হানাহানি মুক্ত করা ।এর সাথে এলাকার রাস্তা-ঘাট ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন , আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ হলেই আমরা খুশি। রুহী বিগত সময়ে দক্ষতার সাথে করতে পেরেছে, আগামীতেও করতে পারবে ভরসা রাখছি।

বিজ্ঞ মহল সূত্রে জানা গেছে চারদিকে আলহাজ্ব মোশতাক আহমেদ রুহী সাহেবের ন্যায় পরায়ন কর্মকান্ডের প্রতি মানুষের অনেক বিশ্বাস ও আস্থা । বিগত সময়ের উনার রেকর্ড অনেক ভাল। তাছাড়া অনেক উন্নয়ন কাজ করেছেন । আশা করা যায় আগামীতেও সফল হবেন। তারা আরো বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে উনার বিশ্বস্ত রুহীর মতই যোগ্য ও জনপ্রিয় নেতাদেরই বড় বেশী প্রয়োজন । বিজয়পুরের এক আদিবাসী বললেন রুহী ভাই যদি আজ থাকতেন তাহলে রাস্তাঘাটের উন্নয়ন কাজ ও পর্যটন অনেক এগিয়ে যেতো।

আমাদের নিরাপত্তা শিক্ষা সংস্কৃতির প্রতি উনার বিশেষ নজর ছিল। আশা করি অতীতের মতন আগামীতেও রাখবেন। রুহী ভাইয়ের প্রতি মানুষের প্রত্যাশা পাহাড় সমান। এক এক করে সবার প্রত্যাশা পূর্ণ করবেন। গতকাল সন্ধ্যায় চায়ের দোকানে চা খাচ্ছিলাম, এমন সময় একজন তরুন ছেলে একটা লিফলেটটা হাতে দিয়ে বললো, আলহাজ্ব মোশতাক আহমেদ রুহী ভাই দুর্গাপুর – কলমাকান্দার সার্বিক দিক বিবেচনা করে ১২ দফা প্রণয়ন করেছেন, আশা করি পড়ে দেখবেন।

তার সাথে কথা বলতে শুরু করলাম—- আমাদের নেতা সবার চেয়ে আলাদা, তিনি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। বর্তমান সময়ে এই দফাগুলো বাস্তবায়ন করা জরুরী,তাই নেতা প্রয়োজনের তাগিতে তৈরি করেছেন । আরেক যুবক বললেন , আমি মনে করি এই ১২ দফা দূর্গাপুর কলমাকান্দাবাসীর মুক্তির সনদ । দূর্গাপুর কলমাকান্দাবাসীর জন্য এই ১২ দফা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর বাঙ্গালীর মুক্তির সনদ ঐতিহাসিক ৬ দফার মতই ম্যাগনাকার্টা বলে আমার কাছে মনে হচ্ছে। নেতারাই পারে সমাজ কে পরিবর্তন করে নতুন এক মাত্রা দিতে, তরুন পরিশ্রমী যুবকেরাই সেই স্বপ্নকে ব্যস্তবায়নে ভুমিকা রাখতে পারে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর