শিরোনাম

ধর্ষকদের প্রতি থু থু নিক্ষেপের আহ্বান জানিয়েছে যুব ইউনিয়ন

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৩:০৫:০৬ পূর্বাহ্ণ - ১৪ মে ২০১৭ | ১১২

ধর্ষণকারী যত প্রভাবশালী পরিবারের সদস্যই হোক না কেন, তাকে কঠোর এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। ধর্ষক ও তার মদদদাতাদের প্রতি দেশব্যাপী থু থু নিক্ষেপ কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন।

শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান সংগঠনের সভাপতি হাসান হাফিজুর রহমান সোহেল।

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক হাফিজ আদনান রিয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক শিশির চক্রবর্তী, সহ সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াৎ, নারী বিষয়ক সম্পাদক জোনাকী জাহান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য খান আসাদুজ্জামান মাসুম, ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন, যুবনেতা গোলাম রাব্বী খান প্রমুখ।

এ সময় হাসান হাফিজুর রহমান সোহেল দেশের বিভিন্ন স্থানে অব্যাহত নারী নিপীড়ন ও ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, একের পর এক নারী নিপীড়ন এবং ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে। কিন্তু সকল ক্ষেত্রেই পুলিশ প্রথমে বিষয়টিকে হালকাভাবে গ্রহণ করে। ভিকটিমদের সামাজিক নিন্দার কথা বলে সমঝোতার প্রস্তাব দেয়।

তিনি বলেন, এসব ঘটনায় সামাজিক প্রতিরোধের কারণে পুলিশ মামলা নিলেও অপরাধীদের গ্রেফতারে তারা শিথিল ভূমিকা পালন করে। পুলিশের এ ধরনের প্রবণতার কারণে অপরাধীরা প্রায়শই ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যায়। যদি ধর্ষকদের বিচারের ক্ষোত্রে কোনো পর্যায়ে গড়মিল ও শিথিলতা দেখা যায়। তবে দায়ীদেরকেও ঘেরাও করা হবে।

তিনি বলেন, আপন জুয়েলার্সের মালিক তার ছেলের পক্ষে সাফাই গেয়ে সমপর্যায়ের অপরাধ করেছেন। তাই আপন জুয়েলার্সকে বর্জন করা সকলের দায়িত্ব। সরকারও প্রভাবশালীদের আড়াল করার জন্য বনানীর ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

তিনি আরো বলেন, তনু, আফসানা, হালিমা, আয়েশা, সবিতা চাকমাসহ যাদেরকে ধর্ষণ করা হয়েছে ওইসব ধর্ষণের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার নিশ্চিত করতে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। অবিলম্বে জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল রাজপথ প্রদক্ষিণ করে পুরানা পল্টনে এসে শেষ হয়।

 

 

janatarpratidin.com / Md. Bappy / 14 May 2017

 

সর্বশেষ