শিরোনাম

থেমে নেই শহর ছাত্রলীগের সদ্য বিদায়ী সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফ।

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৩:৪২:১১ পূর্বাহ্ণ - ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৬৩

বিলুপ্ত করে দেওয়ার দুই মাস পার হলেও ছাত্রলীগের কোন সাংগঠনিক কার্যক্রম নেই ময়মনসিংহ মহানগরীতে। গত ৬ অক্টোবর ময়মনসিংহ শহর ছাত্রলীগকে মহানগরীতে অন্তর্ভূক্ত করে আগের কমিটি বিলুপ্ত করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

এখনো নতুন কমিটি না হওয়ায় কিছুটা ঝিমিয়ে পড়েছে সাংগঠনিক তৎপরতা। তবে থেমে নেই শহর ছাত্রলীগের সদ্য বিদায়ী সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফ। কোন নির্বাহী পদবী না থাকলেও এ ছাত্রলীগ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ডের প্রচার ও আগামী সংসদ নির্বাচনে মহাজোট প্রার্থীকে বিজয়ী করতে চালিয়ে যাচ্ছেন জোর প্রচার-প্রচারণা।

সহযোদ্ধাদের অকৃত্রিম ভালোবাসা তার জন্য সীমাহীন। আর তাইতো কমিটি না থাকলেও দলীয় নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত রেখেছেন তৃণমূল নেতাকর্মীদের কাছে জনপ্রিয় ও মেধাবী এই নেতা।

ঘনিয়ে আসছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন, শুরু হয়ে গেছে ভোটের ডামাডোল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ডের ধারাবাহিকতা যেন বজায় থাকে সেজন্য মহাজোট প্রার্থীকে বিজয়ী করতে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন আরিফ। কর্মীদের সাথে নিয়ে যাচ্ছেন ভোটারদের কাছে, করছেন সরকারের উন্নয়ন প্রচারণা।

আবদুল্লাহ আল মামুন আরিফ বলেন, প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আমাদের ময়মনসিংহে ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছেন। তিনি ময়মনসিংহ বিভাগ, সিটি কর্পোরেশন, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ককে ফোর লেনে উন্নীতকরণসহ প্রচুর উন্নয়ন উপহার দিয়েছেন আমাদের ময়মনসিংহে। অথচ প্রত্যন্ত অঞ্চলের অনেক মানুষ এ সম্পর্কে অবগত নন। তাই শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসেবে সাধারণ মানুষের কাছে উন্নয়নগুলো ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সহায়তায় তুলে ধরছি। সরকারের উন্নয়ন তথ্য সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছানো গেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অতীতের মতো আস্থা রাখবে জনগণ।

আরিফ বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে। তাই দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রাখতে হলে জননেত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, ‘আন্দোলন বা নির্বাচন কোনটাই ছাত্রলীগ ছাড়া হয় না। এবারের নির্বাচনে মহাজোটকে বিজয়ী করতে বলিষ্ট দায়িত্ব পালন করতে হবে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদেরকেই।

সর্বশেষ