শিরোনাম

জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি থেকে জাতীয় সংসদে

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৪:১৩:৫৪ অপরাহ্ণ - ০৫ জানুয়ারি ২০১৯ | ৮৫

চাঁদপুর : স্বাধীনতার পর প্রথম বারের মত চাঁদপুর-৪ আসনে (ফরিদগঞ্জ) আওয়ামী লীগ বিজয়ী হয়েছে। এটি জাতীয় সংসদের ২৬৩ তম আসন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুহাম্মদ শফিকুর রহমান এই আসন থেকে জয়ী হয়েছেন। একজন মুক্তিযোদ্ধাও ছিলেন তিনি। জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদিকদের প্রতিনিধিত্ব থেকে এখন সংসদে জনগনের প্রতিনিধিত্ব করবেন তিনি।

তার জয়ে শুধু ফরিদগঞ্জবাসী নয়, ফরিদগঞ্জ আওয়ামী লীগ, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

১৯৭৩ সালের পর এই প্রথম একজন পেশাদার সাংবাদিক জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ২০০১ ও ২০০৮ সালে এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন।

ভোটের পর ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, নির্বাচনের ফলাফলে তিনি মোট ভোট পেয়েছেন ১ লাখ ৭৩ হাজার ৩৬৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা ও সাবেক এমপি লায়ন মো. হারুনুর রশীদ ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ভোট পেয়েছেন ৩০ হাজার ৭৯৯ ভোট।

নবনির্বাচিত সাংসদ ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান বলেন, ফরিদগঞ্জকে আধুনিক উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলব। পাশাপাশি এই উপজেলা থেকে মাদক দূর করার শপথ নিচ্ছি। এছাড়াও সরকার থেকে সুযোগ পেলে সাংবাদিক শফিকুর রহমানে সাংবাদিকদের জন্য ভালো কিছু করার চেষ্টা করব।

সাংবাদিক শফিকুর রহমানের জন্ম ফরিদগঞ্জের বালিথুবা ইউনিয়নের মিয়াজী বাড়িতে। ফরিদগঞ্জ আলিয়া মাদ্রাসায় পড়ার সময় থেকে তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। পরে তিনি আওয়ামী লীগে যোগ দেন। ২০০১ ও ২০০৮ সালে তিনি এই আসনে আওয়ামী লীগ থেকে সাংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন।

তিনি ১৯৬৫ সালে ফরিদগঞ্জের আলীয়া মাদ্রাসা থেকে কামিল (হাদিস) ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৬৭ সালে চাঁদপুর কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ১৯৭০ সালে দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ (অনার্স) ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৭১ সালে ঢাবি থেকে বাংলায় এমএ ডিগ্রি লাভ করেন।

পরে তিনি যুক্তরাজ্য ও জাপানে সাংবাদিকতার ওপর উচ্চতর শিক্ষা নেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া অবস্থায় তিনি ইত্তেফাকের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি হয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন। বর্তমানে তিনি বেসরকারি সিটিজেন টেলিভিশনের চেয়ারম্যান ও প্রধান সম্পাদক।

সর্বশেষ