শিরোনাম

কোটা আন্দোলনে ছদ্মবেশী সংস্কারপন্থীদের “বেয়াদব” আখ্যা দিয়ে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলো ছাত্রলীগ নেতা-রকিব।

সর্বশেষ আপডেটঃ ০৬:০৩:২৮ পূর্বাহ্ণ - ০৮ মে ২০১৮ | ১৬৫
গতকাল ৭/৫/২০১৮ ইং তারিখ সোমবার- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় ৭১ হলের লাইব্রেরী কক্ষে অধ্যয়ন চলাকালীন সময় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে কোটা সংস্কারপন্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখে অন্যতম নেতা রাশেদুল ইসলাম রাশেদ এবং পরবর্তী নির্দেশনা প্রদান করে।
তিনি তার বক্তব্যের একপর্যায়ে সর্বস্তরের সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে সাহায্য কামনা করে এবং রাজপথে দাবানল সৃষ্টির জন্য আহ্বান জানান।
 
এদিকে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব তার ব্যক্তিগত ফেইসবুক একাউন্ট থেকে এই সংস্কারপন্থী নেতা রাশেদুল ইসলাম রাশেদের উস্কানিমূলক বক্তব্যে তীব্র সমালচনা করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ও কোটা আন্দোলনের নামে ছদ্মবেশী দুষ্কৃতিদের “বেয়াদব” আখ্যা দিয়ে ময়মনসিংহের রাজপথে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন। ময়মনসিংহের এই ছাত্রলীগ নেতার ফেইসবুক টাইমলাইন থেকে তার ব্যক্তিগত পোস্টটি হুবুহু তুলে ধরা হলো- 
নাহ্! আর চুপ থাকতে পারলাম না!
কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের এসব বেয়াদবি এবং যাচ্ছেতাই মিথ্যাচার মেনে নেয়া যাচ্ছে না!
অনেক হয়েছে, হ্যাঁ অনেক!

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিলো ৭মে’র মধ্যে কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে মাননীয় নেত্রী তার অভিমত জানাবেন!
(সূত্র-আওয়ামীলীগের উর্ধ্বতন নেতাদের সাক্ষাৎ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলন)
কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা সে সময়ের বহু পূর্বেই মহান জাতীয় সংসদে তার সুস্পষ্ট বক্তব্য ও অভিমত ব্যক্ত করেছেন।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিন্তু জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছিলেন কোটা সংস্কার পদ্ধতি পরীক্ষা করে দেখতে।

অথচ আজ অথর্ব সংস্কার পন্ডিতরা বলে বেরাচ্ছে-
৭মে নাকি প্রজ্ঞাপন জারি করার কথা বলা হয়েছে।

আর হ্যাঁ,আরেকটি কথা জানতে চাই?
ঐসব আত্নস্বীকৃত মেধাবী বা তথাকথিত কোটা সংস্কার পণ্ডিতরা রাজপথে দাবানল সৃষ্টির জন্য যে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে সাহায্য চাইলো; কার্যত ওরা কি সংস্কার চাইছে নাকি কারো দলীয় স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য রাজপথে নৈরাজ্য সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে?

মেধাবীদের (!) আন্দোলনে #দাবানল শব্দটা কেনো আসলো!
অহিংস আন্দোলন কেনো সহিংস হয়ে গিয়েছিল!
সংস্কারবাদীরা কি আদৌ সুবোধ ছিলো!
আন্দোলন কখনোই শান্তিপূর্ণ ছিলো না বরং যারা এর নেতৃত্বে ছিলো এবং আছে তারা পুরোদস্তুর আপাদমস্তক স্বার্থান্বেষী উগ্র এবং আগ্রাসী ছিলো!
সত্যিই ওরা কখনোই কোটা সংস্কারে আগ্রহী ছিলো না!

বেয়াদবিটা ভালো লাগলো না
মিথ্যাচারের কিন্তু একটা সীমা থাকা চাই!

ময়মনসিংহ অঞ্চলে যদি কেউ ঐসব স্বার্থপর, অথর্ব বেয়াদব এবং মিথ্যাবাদীদের জন্য তথাকথিত প্রশ্নবিদ্ধ কোটা সংস্কার আন্দোলনে যোগ দেয় বা রাজপথে নামে তবে কিন্তু…………

আমরা ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ কিন্তু ওদের মতো দাবানল করবো না….
ওদের মেধার Just একটু কদর করবো!
আইসো পারলে আইসো…
সত্যিই তোমাদের এবার #ভদ্রতা শেখাবো!

হারারাইত সুময় আছে ভাইব্বা চিইন্তা ল‌ও গো ভাই
রাজপথে দাবানল হলে তোমগো কুন্তী উফায় নাই!

Have a sweet & sound sleep….

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর